অবশেষে চামড়ার স্তুপ সড়াতে ঘটনাস্থলে সদর ইউএনও

0

‘শত শত চামড়ার স্তূপ, দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে চারদিক’ এমন সংবাদ ও পরিবেশ দূষনের প্রতিকার চেয়ে বিভিন্ন সামাজিক গণমাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হতে থাকে দিনভর। ঘটনার গুরুত্ব অনুধাবন করে রাতেই ঘটনাস্থলে ছুটে যান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (সদর ইউএনও) নাহিদা বারিক।

বুধবার (১৪ আগস্ট) দুপুরের দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে সিটি করপোরেশনের এড়িয়া পিলারের কাছের ময়লার বাগাড়ের সামনে গিয়ে দেখা গেছে চামড়ার স্তূপ। স্থানীয়রা বলছেন, সকালে ট্রাক আর ভ্যান গাড়ি করে লোকজন এসব চামড়া এখানে ফেলে গেছেন। সময় গড়ানোর সাথে সাথে এসব চামড়া থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এতে করে এই পথে চলাচলরত মানুষ-জন সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হতে থাকে। সেই সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ব্যপক সমালোচিত হয়ে ভাইরাল হতে থাকে। দিন শেষে রাতে সদর ইউএনও ২জন চেয়ারম্যানকে সাথে নিয়ে নিজেই ঘটাস্থল পরিদর্শন করেন। এবং

ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনি দেখেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন লিংক রোডে গড়ে উঠেছে এক বিশাল ময়লার ভাগাড়। সেই ময়লার ভাগাড়ের দুর্গন্ধে দূর্ভোগ পোহাতে হয় সাধারন মানুষের। তাছাড়া এর মধ্যে গত কয়েকদিন আগে কে বা কারা কয়েকটি মরা গরু এখানে ফেলে যায়। বিষয়টি সদর ইউএনও নাহিদা বারিকের দৃষ্টি গোচর হলে তিনি তার লোকজন নিয়ে পঁচা দুর্গন্ধযুক্ত গরুগুলো মাটিতে পুতে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে কোরবানী দেওয়া গরুর চামড়া ও পরিত্যক্ত অংশ ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে পাশে টানা দুই দিন ধরে চামড়া পরে থাকায় দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে সাধারন মানুষ। সেই দুর্গন্ধে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে এ পথে চলাচলকারী জনগনসহ আশপাশের বাসিন্দারা।

সদর উপজেলা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, দূর্ভোগের বিষয়টি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ দেখেও যেন দেখছে না। এমন খবর পেয়ে বুধবার রাতেই নাহিদা বারিক ছুটে আসেন বর্জ্য অপসারনে। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (সদর ইউএনও) নাহিদা বারিক এর নির্দেশে ১৫ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সদর উপজেলার লোকজন এ বর্জ্য অপসারনের কাজ শুরু করবেন ।

0