অর্থের অভাবে কলেজ ছাত্র অপূর্বের চিকিৎসা করাতে পারছে না

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দুটি কিডনি নষ্ট হয়ে যাওয়ার পরও অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছে না ফতুল্লার হরিহরপাড়া এলাকার কলেজ ছাত্র হযরত আলী অপূর্ব (১৮)। তিনি একজন মেধাবী ছাত্র হলেও দুটি কিডনি নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারনে তার লেখাপড়াও বন্ধ হয়ে আছে। অপূর্ব বাঁচতে চাই, সবার সাথে হাসি খুশি ভাবে জীবন যাপন করতে চায়। সমাজের বিত্তবানদের সামান্য কিছু সাহায্যই দিতে পারে অপূর্বের নতুন একটি সুন্দর জীবন।

এদিকে নিজের কলেজ পড়ুয়া ছেলেকে বাঁচাতে সাহায্যের জন্য মানুষের দুয়ারে দুয়ারে ছুটে বেড়াচ্ছে অপূর্বের বাবা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আক্তার হোসেন। তিনি ছেলের কষ্টের কথা চিন্তা করে এবং ছেলেকে বাঁচাতে নিজের লজ্জা কাটিয়ে মানুষের মানুষের কাছে সাহায্যের প্রার্থনা করেছেন। বিভিন্ন লোকজন অপূর্বের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের হাত বাড়ালেও আর প্রায় ১৫ লাখ টাকার প্রয়োজন বলে অপূর্বের বাবা আক্তার হোসেন জানিয়েছেন।

জানা যায়, ফতুল্লার হরিহরপাড়া এলাকার আক্তার হোসেনের ছেলে হযরত আলী অপূর্ব। সে নারায়ণগঞ্জ কমার্স কলেজের প্রথম বর্ষের মেধাবী ছাত্র। তারা এক ভাই এক বোনের মধ্যে অপূর্ব বড়। তার বাবা একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। অপূর্বের দুটি কিডনি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বাবা উপার্জনের টাকা দিয়ে চিকিৎসা করিয়ে সর্বশান্ত হয়ে পড়েছে। অপূর্বের উন্নত চিকিৎসার জন্য কমপক্ষে প্রচুর টাকা দরকার। এতো টাকা খরচ বহন করাটা বাবা আক্তার হোসেনের পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। টাকার জন্য বিভিন্ন দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে সে। অপূর্বকে বাঁচাতে নিজের সকল কিছু বিক্রি করে চিকিৎসা করিয়ে হতাশা হয়ে এখন মানুষের কাছে সাহায্যের আবেদন করছে। সমাজের ধনী ও বিত্তবানরা একটু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলে কলেজ পড়ুয়া অপূর্বের চিকিৎসা করিয়ে বাঁচার স্বপ্ন দেখতে পারে। আবার হাসি খুশি ভাবে কলেজে যেতে পারবে এবং লেখাপড়া করে দেশ ও জাতির জন্য কাজ করতে পারবে।

এদিকে কলেজ ছাত্র অপূর্বের চিকিৎসার জন্য সাহায্য করতে এবং তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করতে মোবাইল নং-০১৭৯৪১১৭০০ (বিকাশ) ও ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার-০১১৪-৩১১০০০০১৫৫৬ (এন আর বি ব্যাংক পঞ্চবটি শাখা ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।

0