আইভীর উন্নয়ন জনগণের কাজে আসেনি: টিপু

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: পেটে যদি ভাত না থাকে, তাহলে বড় বড় অট্টালিকা বা বড় বড় রাস্তা আর লেক দিয়ে কি হবে?ে আজকে সিটি করপোরেশনের উন্নয়ন বলতে বন্দরের কিছু রাস্তা বড় হয়েছে। আর হাতিরঝিল আদলে রাসেল পার্ক করেছে। এ গুলো নারায়ণগঞ্জের জনগণের কোন কাজে আসেনা।

এমনটাই মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মো. আবু আল ইউসুফ খান টিপু। যানজট, জলাবদ্ধতা, বাজার ব্যবস্থা, নাগরিক নিরাপত্তা ইস্যুসহ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন এলাকার নানা বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

এড. মো. আবু আল ইউসুফ খান টিপু আরও বলেন, আজকে পাড়ামহল্লায় মাদক ভরে গেছে। কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত চরমে। নারায়ণগঞ্জে সুপরিকল্পেত ভাবে কোন রাস্তা ঘাট নেই। ২ নম্বর গেইটে যানজট, চাষাঢ়ার মোড়, কালিরবাজার, ১নং গেট, টানবাজার, যেখানে যাবেন যানজট। যানজট নিরসনের কোন উদ্যোগ কিন্তু মেয়র এ যাবৎ নেন নি। এবং ১৮ বছরে মেয়র নারায়ণগঞ্জের জনগণের উপরে করের বোঝা চাপিয়ে দিয়েছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন যে হারে কর নিচ্ছে, ঢাকা সিটি করপোরেশনও সেই হারে কর নিচ্ছে না।

তিনি বলেন, ওয়াসার দায়িত্ব নিয়ে বাড়ি গুলোতে এখন ডিপকল বসাতে দেওয়া হয় না। বসাতে গেলে সিটি করপোরেশনকে বিশাল অঙ্কের টাকা দিতে হচ্ছে। আমি মনে করি, আগে যদি মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়ন হয়। তাহলে রাস্তাঘাট উন্নয়ন কাজে আসবে। আমাদের জীবন মান যদি উন্নয়ন না হয়, তাহলে রাস্তাঘাট সিংগাপুর বানিয়ে ফেললেও সেটাকে উন্নয়ন বলা যাবে না। আমি মনে করি, উন্নয়ন একটি গতানুগতিক ব্যাপার। যে সরকার আসবে, সেই সরকারের জনপ্রতিনিধিরাই কম বেশি উন্নয়ন করার চেষ্টা করবে । অতএব, উন্নয়ন দিয়েই কারো বিচার বিশ্লেষন করলে চলবে না। বিচার বিশ্লেষন করতে হবে, তার মানুষিক চরিত্র কেমন। মানুষের বিপদে আপদে দাঁড়ায় কি না।

জনতার নয় আইভী আসলে তার নিজের, এমনটা জানিয়ে টিপু বলেন, ‘করোনার সময়তো আমরা তাকে ৬ মাস কোথাও দেখিনি। তখনতো আমাদের দলীয় নেতাকর্মীরা রাস্তাঘাটে নেমে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। নারায়ণগঞ্জবাসী আশা করেছিল, আইভী মেয়র হলে মানুষের বিপদে পাশে দাঁড়াবে। কিন্তু সেটা নারায়ণগঞ্জবাসী দেখতে পায়নি। তাই তিনি নগরবাসীর তথা জনতার হতে পারেনি, এর চেয়ে বড় প্রমান কী লাগবে?’

সুন্দর নগরের প্রত্যাশায় এ তারুণ্যেও প্রিয় নেতা এড. মো. আবু আল ইউসুফ খান টিপু বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনকে একটি আধুনিক সিটি করপোরেশনে রূপান্তীত করতে হলে- সুপরিকল্পেত ভাবে উন্নয়ন করতে হবে। নারায়ণগঞ্জে সন্ত্রাস, মাদক মুক্ত ও চাঁদাবাজ মুক্ত করতে হলে, ব্যবসায়ীদেরকে নিরাপত্তা দিতে গেলে এবং নারায়ণগঞ্জের জনগণের একজন খাদেম হিসেবে কাজ করতে গেলে মেয়রকে আরো পরিচ্ছন্ন হতে হবে, মানব সেবী হতে হবে। এবং মানবিক গুনাবলী থাকতে হবে। আশাকরি, আগামীতে যদি আমার দল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে যায়, তাহলে আমার দল একজন সৎ, ত্যাগী যোগ্য প্রার্থী দিবে, যিনি জনগণের পাশে থাকবে সবসময়।

নিউজ পড়তে ক্লিক করুন

`আইভীর জন্য বিএনপি’র একটি অংশ গোপনে কাজ করেছে’

0