আইভীর বক্তব্য সরকারকে চ্যালেঞ্জের শামিল!

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: হঠাৎ করেই জাতীয় দূর্যোগের কথা বললেন সিটি মেয়র আইভী। তিনি বলেছেন, এক আইভীকে ঠেকাতে জাতীয় দূর্যোগ ডেকে আনা হচ্ছেনা তো! জাতীয় দূর্যোগ বলতে তিনি কি বোঝাতে চেয়েছেন এ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে বিভিন্ন মহলে। তাহলে কি আইভীকে মনোনয়ন না দিলে জাতীয় দূর্যোগ দেখা দিবে? সরকারের ক্ষতি হবে? তিনি কি জাতীয় দূর্যোগের ভয় দেখিয়ে সরকারকে চ্যালেঞ্জ করছেন? এমন প্রশ্ন নগরবাসীর মাঝে ঘুরপাক খাচ্ছে। এর আগে বিভিন্ন সময়ে মেয়র আইভী নিজেকে খুব বড় মাপের একজন বোঝাতে চেয়ে অনেক কথাই বলেছেন, যা নিয়ে নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিক অঙ্গনে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। তিনি প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা মহানগর কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেনকে মহানগর কমিটির সভাপতি বানিয়েছেন বলে দম্ভ করে প্রায়ই বলেন। অথচ মহানগর কমিটিতে তার নিজের নামই নেই। এমন সিনিয়র নেতাদের নিয়ে যাচ্ছে-তাই মন্তব্য করে দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের বিরাগভাজন হয়েছেন। এবার তাকে ঠেকানোর চেষ্টাকে জাতীয় দূর্যোগ বলে অখ্যায়িত করে নিজেকে বড় ধরণের ফ্যাক্টর বোঝাতে চেয়েছেন বলে মনে করছেন অনেকে।

জানা গেছে, মেয়র আইভীর সাথে আগে থেকেই গভীর সখ্যতা রয়েছে বিভিন্ন সময় আওয়ামী লীগ থেকে বাদ পড়া ড. কামাল হোসেন, মাহমুদুর রহমান মান্না, এস এম আকরামসহ অনেকের। ২০১১ সালে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে জয়লাভের জন্য তিনি বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও স্থানীয় জামায়াতের সাথে সখ্যতা গড়েন বলে অভিযোগ উঠেছিল। যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল আলী আহসান মুজাহিদ পরিবারকে দ্রæততম সময়ের মধ্যে নাগরিক সনদ দিয়ে সমালোচিত হন মেয়র আইভী। দীর্ঘ ১৮ বছর ক্ষমতায় থাকা আইভী সরকার বিরোধী বড় বড় রাঘববোয়ালদের সাথে সম্পর্ক রেখে চলেন বরাবরই। তাদের ভরসায়ই কি তিনি এমন হুমকী দিলেন যে জাতীয় দূর্যোগ নেমে আসবে। এমনটাই প্রশ্ন রাখছেন জেলার বিভিন্ন নেতারা।
এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল (ভিপি বাদল) লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, উনি এই কথা দিয়ে কি বুঝাতে চাচ্ছেন এটা উনি ভালো বলতে পারবেন। আমি খোলা-মেলা মানুষ, আমি এসব বুঝিনা। ওনাকে বা ওনার কোন লোককে জিজ্ঞেস করেন যে উনি কি বুঝাতে চাচ্ছেন।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা বলেন, উনি মনে হয় দুর্যোগ দেখতে পান।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম বলেন, আইভী বলেছে- যে সাগর-রুনি এবং তনু হত্যা বিচার হচ্ছে না কেনো? আমাদের পার্টির সেক্রাটারি খোকন সাহা বলছেন- যে মেয়র আইভী যদি এক বাপের বেটি হয়, তাহলে প্রকাশ করুন যে সাগর-রুনি এবং তনু হত্যার বিচার কেনো হচ্ছে না। খোকন সাহা চ্যালেঞ্জ করছেন প্রায় এক মাস আগে মিডিয়ার মাধ্যমে। খোকন সাহার এই বক্তব্যের কোন উত্তর তিনি দিতে পারেন নাই। সাগর-রুনি হত্যার মূল রহস্য সে প্রকাশ করে নাই। আইভী সব সময় একটা প্রপাগান্ডা ছড়িয়ে সস্তা বেনিফিটি নেওয়ার চেষ্টা করেন। সেটা হচ্ছে ত্বকি হত্যা, সাগর-রুনি হত্যা, তনু হত্যা, চঞ্চল হত্যা এই গুলো নিয়ে সে সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে সরকাররে অবস্থানের বিরুদ্ধে কথা বলে, সরকারে আইন-শৃঙ্খলার বিরুদ্ধে কথা বলে। সে বিএনপি জামায়াতের একটা সিমপ্যাথি নিয়ে জনপ্রিয়তার আশা করে। আইভী যে আওয়ামী লীগার সেই বিষয়ে আমি প্রশ্ন করতে চাই যে, ওনার সামনে যখন আনু মোহাম্মদ ত্বকি হত্যা মঞ্চে এসে সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে সেই মঞ্চে উনি থাকেন প্রধান অতিথি। সেখানে রফিউর রাব্বি সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিরুদ্ধে কথা বলে। সেই মঞ্চে উনি থাকেন এবং একই সুরে তিনি কথা বলেন। উনি বক্তব্যে বলেছেন সাগর-রুনির হত্যার এবং তনু হত্যা বিচার হচ্ছে না কেনো, সেটা উনি জানেন। এইটা যদি উনি বলে থাকে, তাহলে এইটা সরকার বিরোধী কথা। তাহলে আমি কী মনে করবো যে উনি সরকারি দলের লোক? আমি খন্দকার মোস্তাককে যেমন মনে করি না আওয়ামী লীগের লোক, তেমনি ওনাকেও মনে করি না যে উনি সরকার দলের লোক। আর ওনার যদি সাহস থাকে তাহলে, আমার পার্টির সেক্রেটারি খোকন সাহার কথার জবাব দেক। উনি কথার জবার দিচ্ছে না কেনো?

0