আইভী কিছু ফ্ল্যাট তৈরী করেছে, কাঙ্খিত সেবা দিতে ব্যর্থ: এড. তৈমুর আলম

0

নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা একটি সিটি মেয়রের সর্ব প্রথম কাজ। থাকতে হবে জনগণের প্রতি মেয়রের দায়বদ্ধতা। নির্বাচনের আগে নগর সাজানোর পরিকল্পনা নিয়ে ইশতিয়ার থাকলেও, নির্বাচনের পরে যা বাস্তবায়নে তেমন উদ্যোগ থাকে না। এমন অভিযোগ করে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভি নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন এড. তৈমুর আলম খন্দকার। যিনি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক।

এড. তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, ২০১১ সালের সিটি নির্বাচনে আমি প্রার্থী ছিলাম। তখন আমার কমিটমেন্ট ছিলো নিরাপদ একটি শহর তৈরী করবো। নগরীর মানুষ সম্মান নিয়ে বসবাস করবে। করের বোঝা থাকবে না এবং নাগরিক সুবিধা ভোগ করবে। স্বাস্থ্য সম্মত নগরী হবে। কিন্তু এতা বছরেও সেটি হয়নি, মেয়র আইভী তা করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নাগরিকদের কাঙ্খিত সেবা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। জলবদ্ধতা দূর হয়নি, পরিচ্ছন্ন নগরী হয়নি, মশা মাছির প্রকোপ আছে। সিটি কর্পোরেশনের মেয়র শুধু কিছু ফ্ল্যাট তৈরী করেছে। সিটি কর্পোরেশনের কাজ কী শুধু ফ্ল্যাট তৈরী করা? তার কাজ হলো মানুষের নাগরিক সুবিধা দেয়া। পাঠাগার করা, ব্যায়ামাগার করা, চিকিৎসা কেন্দ্র করা, মাতৃ সদন করা, খেলাধুলার মাঠ করা, বয়স্কদের বিশ্রামাগার করা। এগুলোই মূলত নাগরিক সুবিধা। এলাকায় এলাকায় পত্রিকা স্ট্যান্ড থাকবে, প্রাথমিক শিক্ষা বিস্তারে সহায়তা করা, সিটিতে সবুজায়ণ করা। সেই হিসেবে নারায়ণগঞ্জ সিটিতে কিছুই হয়নি। বর্তমান মেয়র নাগরিক সুবিধা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।

এড. তৈমুর আলম বলেন, গত বারের নির্বাচনে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনকে প্রত্যাখান করেছেন। আমি দলের প্রতি আনুগত্য জানিয়ে প্রত্যাহার মেনে নিয়েছি। কিন্তু অনেক মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে, আমি তাদের কোনো জবাব দিতে পারিনি। তাই ২০১৬ সালে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দল থেকে আমাকে মনোনয়ণ দিয়েছিলো, কিন্তু আমি ইচ্ছে করে মনোনয়ন নেইনি।

0