আজকের খেলায় পাবলিক প্রেডিকশন: জিতবে ব্রাজিল

ক্রীড়া করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দুই দলই এবারের আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচ জিতেছে। দুই দলের সামনেই তাই আজ নকআউটের পথে এক পা রাখার হাতছানি। স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে আজ মুখোমুখি হচ্ছে ব্রাজিল আর সুইজারল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় রাত দশটায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আর এই খেলা নিয়েই উৎসাহিত নারায়ণগঞ্জের ফুটবল প্রেমিরা। পাড়ায় পাড়ায় চলছে বড় পর্দায় খেলা দেখার প্রস্তুতি। তবে আজকের খেলায় নেইমার না থাকলেও আশাবাদী ব্রাজিলের সমর্থকরা। শুধু তাই নয় আর্জেন্টিনার সমর্থকদেরও প্রত্যাশা ব্রজিলের জয়। নগরীর বিভিন্ন স্থান ঘুরে ফুটবল প্রেমিদের সাথে কথা বলে এমনটাই জানা গেলো।

ব্রাজিলের সমর্থকদের প্রত্যাশা:

গোলাম রাব্বি- ‘আশা করি এই ম্যাচও জিতবে। শুধু এটিই নয় প্রত্যোকটি ম্যাচ জিতে, ফাইনালে কাপ নিয়ে ঘরে ফিরবে ব্রাজিল।’

মো. মামুন- ব্রাজিল বর্তমানে র‌্যাংকিং এর দিক দিয়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছে; সুতরাং ধরেই নেয়া যায় যে তাদের চেয়ে শক্তিশালি দল নেই। আর এই খেলা তো চোখ বন্ধ করে ব্রাজিল জিতবে।

মুনিয়া- ‘আমার নে হয় ব্রজিলের কাছে এই ম্যাচটা জয় করা বেশি একটা কঠিন হবে না। বাকিটা রাতে দেখা যাবে।’

সিফাত- আমি সবসময় ব্রাজিল সমর্থন করি। ব্রাজিল অবশ্যই জিতবে। কারণ আমাদের দলে সব স্টার প্লেয়ার রা রয়েছে। নেইমার নে, তবে তার স্থান পুরণ করার মতো খেলোয়ার আমাদের দলে আছে।

সামি- ‘এই খেলায় ব্রাজিলের জয় অনিবার্য। সুইজারল্যান্ড ব্রাজিলের কাছে বেল পাবে না।’

বিপ্লব- ‘প্রতিপক্ষ শক্তিশালি হলেও ব্রাজিলের টিম অত্তন্ত শক্তিশালি। আজকের ম্যাচ ব্রাজিলই জিতবে।’

সোহান- এই বিশ্বকাপে সবচেয়ে স্টেব্যাল টিম হচ্ছে ব্রাজিলের। তাদের ডিফেন্ডার, মিড ফিল্ডার ও স্ট্রাইকার সব দিক দিয়ে ব্রাজিল একটি পারফেক্ট স্কোয়াড। তাই ধরেই নেয়া যায় এবারের বিশ্বকাপ ব্রাজিলই জিতবে।

আর্জেন্টিনার সমর্থকদের প্রত্যাশা:

মো. রাতুল- ‘আমি আর্জেন্টিনা দলের ভক্ত, তবে আজকের ম্যাচে আমি আশা করি ব্রাজিল জিতবে।’

পিয়াস- ‘সুইজারল্যান্ড শক্তিশালি দল, তবে আমার মনে হয় আজকের ম্যাচ ব্রাজিলই জিতবে। ’

নিরাক- ‘আমি নিজে আর্জেন্টিনার সমর্থক, তবে আমি জাচ্ছি ব্রাজিল জিতুক। কেননা আমাদের দেশে ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা নিয়েই সবচেয়ে বেশি উম্মাদনা।’

জুবায়ের- ‘আমার ইচ্ছে এই বিশ্বকাপে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হোক। তাই আমার প্রত্যাশা ব্রাজিল জিতুক।’

আতিক- ‘সেভেন আপ ব্রাজিল অবশ্যই জিতবে। কারণ সুইজারল্যান্ড থেকে ব্রাজিল বেশি শক্তিশালি দল।’

এদিকে, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা সমর্থকদের বাইরেও অন্য দলের সমর্থকদের আশা ব্রাজিল জিতুক। জেলা জুড়ে আজকের ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ড খেলা নিয়ে চলছে দারুণ উত্তেজনা। নগরীর শেখ রাসেল পার্কের বাইরে ব্যবস্থা করা হচ্ছে ২টি প্রজেক্টরে খেলা দেখার।

ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ডের পরিসংখ্যান…

১. বাছাইপর্বে অপরাজিত থেকে কাতার বিশ্বকাপের টিকেট নিশ্চিত করেছে ব্রাজিল। রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন লাতিন আমেরিকার দলটি শিরোপা জিতেছে ১৯৫৮, ১৯৬২, ১৯৭০, ১৯৯৪ ও ২০০২ সালে। এবারের আসরেও ফেভারিট দলগুলোর একটি তারা।

২. সবশেষ চার বিশ্বকাপের তিনটিতেই (২০০৬, ২০১৪ ও ২০১৮ আসরে) শেষ ষোলোয় খেলেছে সুইজারল্যান্ড। ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় গ্রুপপর্বেই শেষ হয়ে যায় তাদের পথচলা।

৩. একমাত্র দল হিসেবে ১৯৩০ সালে শুরু হওয়া ফুটবল বিশ্বকাপের প্রতিটি আসরে খেলছে ব্রাজিল। মোট সাতবার ফাইনাল খেলেছে দলটি, সবশেষ ২০০২ সালে। দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের আসরে জার্মানিকে হারিয়ে নিজেদের পঞ্চম ও শেষ শিরোপা ঘরে তুলেছিল তারা।

৪. বাছাই পর্বে নিজেদের গ্রুপে অপরাজিত ছিল সুইজারল্যান্ড। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে নিয়ে গড়া গ্রুপের সেরা হয়ে সরাসরি বিশ্বকাপের টিকেট পায় তারা।

৫. বিশ্বকাপে এ নিয়ে তৃতীয়বার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ব্রাজিল ও সুইজারল্যান্ড। দুই দলের সবশেষ দেখা ২০১৮ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে। রাশিয়া আসরের ওই ম্যাচটি ১-১ ড্র হয়েছিল। ১৯৫০ বিশ্বকাপে তারা করেছিল ২-২ ড্র।

৭. সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে সব মিলিয়ে ৯টি ম্যাচ খেলেছে ব্রাজিল। যার মধ্যে তিনটিতে জয় তাদের, দুটি জিতেছে সুইসরা। আর বাকি চারটি ম্যাচ হয়েছে ড্র।