আদমজী ইপিজেডে পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ, কর্মবিরতি পালন

0

সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডের একটি রফতানীমুখী পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ হয়েছে। স্ক্যানডেক্স নামের পোশাক কারখানার সিইও কয়েকদিন পূর্বে ৬ জন বহিরাগত লোক নিয়োগ দেয়া হলে শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে। শ্রমিকদের দাবি ঐ ৬ জন লোক ক্যাডার বা সন্ত্রাসী। শ্রমিকদের দমনের জন্য তাদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এনিয়ে প্রথমে মঙ্গলবার দুপুরে শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে।
পরে তারা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আদমজী ইপিজেডের সামনের রাস্তায় অবরোধ সৃষ্টি করে। একপর্যায়ে ২ জন ক্যাডারকে শ্রমিকরা আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। সেই অসন্তোষের জের ধরে বুধবার সকালেও আদমজী ইপিজেড অভ্যন্তরে শ্রমিক অসন্তোষ বিরাজ করে। একপর্যায়ে শ্রমিক পুলিশ ও কারখানা কর্তৃপক্ষ একত্রে বসে বৈঠকের পর পরিস্থিতি শান্ত হলে শ্রমিকরা কাজে যোগ দেয়। শ্রমকিরা জানায়, আদমজী ইপিজেডের নিরাপত্তাকর্মী এবং সংশ্লিষ্ট বিভাগের অবহেলার কারণে কয়েক দফায় শ্রমিক অসন্তোষের ঘটনা ঘটলো।
শিল্প পুলিশ ও শ্রমিকরা জানায়, কারখানার সিও অস্থায়ীভাবে ৬ জন লোক নিয়োগ দেন। এতে ওই কারখানার পুরাতন শ্রমিকদের দাবি নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত শ্রমিকরা সন্ত্রাসী। তারা কারখানায় কাজ করলে পুরাতন শ্রমিকরা কাজে যোগ দিবে না। এ নিয়ে মঙ্গলবার শ্রমিকরা কাজে যোগ না দিয়ে কর্মরিবতি পালন করে। এ সময় ওই নতুন লোকদের সাথে তাদের সংঘর্ষ হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায়ও আদমজী ইপিজেডের সামেন শ্রমিকদের সাথে নতুন ঐ লোকদের মারামারি ঘটনা ঘটে। এ সময় দুইজন ক্যাডারকে শ্রমিকরা আইনশঙ্খলা বাহিনীর কাছে তুলে দেয়। বুধবার দুপুরে শ্রমিকরা ক্যাডারদের বাদ দেয়ার জন্য কর্মরিবতি পালন শুরু করে। এসময় শ্রমিকরা অন্যান্য কারখানার শ্রমিকদের কারখানা থেকে নামিয়ে এনে একত্রিত করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ও শিল্প পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। শ্রমিকদের দাবি, কারখানার সিও সাজিদ মাহমুদ কারখানার মালিককে না জানিয়ে আমাদের নিরীহ শ্রমিকদের শায়েস্তা করতে ৬ সন্ত্রাসীকে শ্রমিক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে।
শিল্পাঞ্চল পুলিশ-৪ এর নারায়ণগঞ্জ জোনের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার সৈকত শাহিন জানান, কারখানায় ১৫-২০ নতুন শ্রমিক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। শ্রমিকদের দাবি এরা শ্রমিক নয় সন্ত্রাসী। কারখানার সিও মালিককে না জানিয়ে এ নিয়োগ দিয়েছে। নতুন শ্রমিকরা যদি কাজে যোগ দেয় তবে পুরাতন শ্রমিকরা কাজ করবে না। এ অযুহাতে তারা কাজ বন্ধ করে দিয়ে কর্মবিরতি পালন করেছে। এ বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। সত্যিই যদি তারা সন্ত্রাসী হয় তবে তারা এ কারখানায় থাকবে না। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরো জানান, যদি সিও একাই নতুন শ্রমিক নিয়োগ থাকেন কিংবা তাদের নিয়োগপত্রে মালিকের স্বাক্ষর নেই কিংবা নিয়োগপত্র নেই, তবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি কামরুল ফারুক জানায়, ইপিজেডের স্ক্যানডেক্সের শ্রমিকরা মঙ্গলবার এএসএম তানবীন সিদ্দিকী (২৪) ও জাহিদুল হক আকাশ (২১) নামের দুই জনকে আটক করে পুলিশর হাতে দিয়েছে। ওই দুইজনকে বুধবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

0