আদালত বিচারের কারখানা, নির্যাতনে কারখানা না: বিচারপতি শওকত

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আদালত বিচারের কারখানা নির্যাতনে কারখানা না। দেশ এগিয়ে গেছে ও যাচ্ছে। সুতরাং দেশের এগিয়ে যাওয় সাথে সাথে বিচার ব্যবস্থাপনা এগিয়ে যাওয়ার লক্ষে সকল আইনজীবীদের সাথে আলোচনা করলেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট ও হাই কোটের বিচারপতি মো. শওকত হোসেন।
রোববার (২ অক্টোবর ) দুপুর ২ টায় জেলা ও দায়রা জজ কোর্টর এলাজ রুমে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সে সময় বিচারপতি মো. শওকত হোসেন বলেন, বিচারব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে মানুষের আস্তা ফিরিয়ে আনতে হবে। বিচারব্যবস্থার দিয়ে গতিধারা সুষ্টি করতে হবে। আপনাদের কাজ জনগণকে সহায়তা করা। তারা আছে বলেই আপনারা এখানে আছেন আর আপনারা এখানে আছেন বলেই আমরা এখানে আছি। মানুষ কী চায়? কতুটুকু চায়! তা আমরা দিতে পারছি কী না সে সর্ম্পকে সচেতন হতে হবে। আমরা যে যেখানে আছি সেখান থেকে যদি একটু সচেতনতার সাথে কাজ করতে পারি তাহলে বিভিন্ন পর্যায় মানুষ গুলো অল্প সময়ে, অল্প খরচে সকলে বিচার কার্যক্রম থেকে সন্তুষ্ট হতে পারবে।
এছাড়াও তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী চায়, সরকার চায়, আমি চাই, আমরা সবাই চাই বিচার ব্যবস্থাপনায় বিচার দূরগড়ায় যাওক। একজন আসামি জামিন পেয়েছে কিন্তু জামিন দাখিল না হওয়ায় জামিন পাওয়ার পরে তাকে ২/৩ দিন লেগে যায় বেড় হতে। কেন জামিন পাওয়ার পরে সে আটক থেকে সরকারের খাবার খাবে আটক থেকে। আপনাদের সচেতন হতে হবে। যে আসামি যেদিন জামিন পাবে সে যেন সেদিনই বেড় হয়ে যেতে পারে। এতে করে ঠিক তিনি যেমন খুশি হবে ঠিক আমাদের বিচার ব্যবস্থারও সুনাম বৃদ্ধি পাবে।
তিনি আর বলেন, আপনারা মনে করেন না দ্রুত বিচার নিষ্পতি হলে, অল্প সময়ে ও অল্প টাকায় এত আপনাদের মামলার সংখ্যা কমে যাচ্ছে না এটা ঠিক না আপনারা যদি অল্প সময়ে মানুষকে ভালো সুযোগ-সুবিধা দিতে পারেন এতে করে তাদের মনে অস্থা ফিরে আসবে বিচার ব্যবস্থার উপর। তারা মামলা করার আগে কত বছর লাগবে নিষ্পতির জন্য ও কত টাকা লাগবে সে কথা জিজ্ঞাসা করবে না।
এছাড়াও তিনি সিভিল বিচার কার্যক্রম সম্পর্কে ও দীর্ঘ সময়ের বিচার ব্যবস্থার মধ্যে দ্রুত পরিবর্তন সহ সচেতনতার কথা বলেন।
এ সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. মো. হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক মো. মহোসীন মিয়া, জিপি মেরিনা বেগম, জেলা ও দায়রা জজ আদালতরে পাবলকি প্রসকিউিটর (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন, সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের সচিব সিনিয়র এড. মাসুদুর রউফ, এড.আনিসুর রহমান দিপু,এড. মাহমুদা মালা, এড.হাবিব আল মুজাহিদ পলু, এড. হান্নান আহমেদ দুলাল, আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহসভাপতি এড.আলী আহাম্মদ ভূঁইয়া, এড.স্বপন ভূইয়া, এড. জিয়াউল ইসলাম কাজল, এড. জসিম উদ্দিন, এড. সালাউদ্দিন, এড. ফজলে রাব্বি, এড.রাসেল, এড. রুমেল মোল্লা, এড. মিজানুর রহমান, এড. ফাহিম, এড. শাহ ইমতিয়াজ আহমেদ রাজিব, এড. কানিজ ফাতেমা, এড. আলী আকবর, এড.নজরুল ইসলাম, এড. নূরহোসেন, এড. নজরুল ইসলাম, এড. নারায়ণ সাহা, এড. মুনতাসির বাঁধন, এড. শরীফুল ইসলাম, এড. রহিম প্রমুখ, এড. নারায়ণ চন্দ্র ঘোষ, এড. জেএম ফেরদৌস, এড. মামুন সিরাজুল মজিদ, এড. এমদাদ হোসেন সোহেল, এড. বিভা রানী কর্মকার, এড. জিয়াসমিন সহ সকল আইনজীবীবৃন্দরা।

0