আর অস্ত্র পাবে না নিয়াজুল ও বাবু!

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের এক সময়কার চার খলিফার এক খলিফা খ্যাত নিয়াজুল ইসলাম ও ডিশ ব্যবসার নিয়ন্ত্রক হিসেবে পরিচিত কাউন্সিলর আব্দুল করিম ওরফে ডিশ বাবু আর বৈধ অস্ত্র ব্যবহার করতে পারবেন না। গত ১৮ জুন জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে তাদের তিন অস্ত্রের লাইসেন্স নবায়ন না করতে পুলিশ পৃথক দুটি প্রতিবেদন দাখিল করেছে।

সূত্র মতে, ২০০১ সালে একটি পিস্তলের লাইসেন্স নেন নিয়াজুল। গত বছর হকার সংঘর্ষের সময়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (এনসিসি) মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর দিকে এই পিস্তল উঁচিয়ে ছিলেন। ্ওই সময় মেয়রের সাথে থাকা লোকজন নিয়াজুলকে মারধর করে। ওই ঘটনায় পিস্তলটি খোয়া যায় পরে পুলিশ তা উদ্ধার করে।

২০১১ সালে একটি শর্টগান ও একটি পিস্তলের লাইসেন্স পান জেলার আলোচিত ডিশ ব্যবসায়ী ও এনসিসি ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে অযথা অস্ত্র ব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স প্রদান নবায়ন ও ব্যবহার নীতিমালা ২০১৬ শর্তাবলী ভঙ্গ করে অস্ত্র ব্যবহার করা তা জন নিরাপত্তার ক্ষেত্রে চরম হুমকি স্বরূপ। অস্ত্রটি পুনরায় নবায়ন করা হলে এবং অস্ত্রটি ব্যবহারের সুযোগ পেলে যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে পারে। এ কারণে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল ও ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ জননিরাপত্তায় নিয়াজুল ইসলামের পিস্তল এবং সিটি কপোরেশনের কাউন্সিলর ও কেবল ব্যবসায়ী আব্দুল করিম ওরফে ডিশ বাবুর শর্টগান ও পিস্তলের লাইসেন্স নবায়ন না করতে সুপারিশ করেছেন।

এর আগে গত ২২ জানুয়ারী নিয়াজুল ইসলাম তার পিস্তলের লাইসেন্সের নবায়ন করতে আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে পিস্তলের লাইসেন্স নবায়ন করার বিষয়ে আইনগত মতামত জানতে চেয়ে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখায় চিঠি দেন তৎকালিন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাব্বী মিয়া।

চিঠি পেয়ে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করতে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা ও ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়। সম্প্রতি নিয়াজুলের অস্ত্রের লাইসেন্স নবায়ন বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) কামরুল ইসলাম তদন্ত শেষে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পুলিশ সুপার বরাবর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছেন। অন্যদিকে ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল আজিজ তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন।

এদিকে গত বছরের ১৩ আগস্ট নিতাইগঞ্জে ছোট ভাইয়ের সঙ্গে মারামারি ঘটনায় সিটি করপোরেশন কাউন্সিলর আব্দুল করিম ওরফে ডিশ বাবুর তার লাইসেন্সকৃত পিস্তল দিয়ে ৫ রাউন্ড গুলি করে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করেন। ওই ঘটনায় গত ৭ মে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ আব্দুল করিম বাবুর বাড়ি থেকে অস্ত্র দুটি জব্দ করে পুলিশ।

পুলিশী তদন্তে কাউন্সিলর বাবুর বিরুদ্ধে আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স প্রদান ও নবায়ন ও ব্যবহার নীতিমালা ২০১৬ শর্তাবলী ভঙ্গ করে অস্ত্র ব্যবহার জন নিরাপত্তায় ক্ষেত্রে হুমকি হতে পারে এমন প্রমান মিলে। এই অস্ত্রটি নবায়ন করা হলে সে আবারও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে পারেন মর্মে তার অস্ত্র দুটি পুনরায় নবায়ন না করতে সুপারিশ করে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ প্রতিবেদন দেন।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবুর দুটি অস্ত্রের লাইসেন্স নবায়ন না করতে প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: নূরে আলম জানান, অস্ত্রের লাইসেন্স নবায়ন বিষয়ে থানা পুলিশের প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। প্রতিবেদন দুটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো: জসীম উদ্দিন জানান, পুলিশের প্রতিবেদন অনুযায়ী অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

[তথ্যসূত্র: প্রথম আলো]

১,০০৯
0