ইজতেমায় আয় করা টাকা লুটে নিল ভুয়া কাউন্টারম্যান

0

সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপন্ডেট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়ে কাউন্টারম্যান সেজে রুহুল আমিন (৬০) নামে এক যাত্রীর ৪৫ হাজার টাকা লুটের অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (২৬ জানুয়ারী) দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড়ের উত্তর পাশে তিশা বাস কাউন্টারের সামনে এ ঘটনাটি ঘটেছে। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মজিবুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

যাত্রী রুহুল আমিন কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ থানার নোয়াগাও গ্রামের মৃত আলী আহমেদের ছেলে।

রুহুল আমিন জানায়, আমার ছেলের বাসা সানারপাড়ে। আমার ছেলে টঙ্গীর ইজতেমার মাঠে কাপড়ের দোকানদার। ছেলের বাসা থেকে আমার প্রতিবেশীর পাওনা ৪৫ হাজার টাকা নিয়ে দুপুরে বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশ্যে শিমরাইল মোড় তিশা কাউন্টারের সামনে আসি। এসময় দুইজন যুবক কোথায় যাব জানতে চাইলে আমি বলি কুমিল্লায়। পরে তারা বলে ৪৩০ টাকা দেন। তখন আমার কোর্টের পকেটে থাকা ৪৫ হাজার টাকার বান্ডেল থেকে ৫০০ টাকা বের করে দিলে আমাকে ৭০ টাকা ফেরত দিয়ে একটি টিকেট দেয়। আমার সাথে এতো টাকা দেখে তাদের ইশারা মতো আরো দুই যুবক তাদের সাথে যুক্ত হয়ে আমার চারপাশে দাড়ায়। গাড়ী আসার পর আমার সাথে থাকা দুটি ব্যাগ নিয়ে গাড়ীতে উঠতে গেলে তারাও আমার সাথে ভিড়াভিড়ি করে সামনে এগিয়ে যায়। গাড়ীতে উঠে হঠাৎ পকেটে হাত দিয়ে দেখি আমার টাকা নাই এবং তারা এখানে নেই। তখন আমি গাড়ী থেকে নেমে কান্নাকাটি শুরু করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তাদের কাছে বিষয়টি খুলে বলি। উপস্থিত লোকজনের মধ্য থেকে একজন জানায় তাদের একজনের নাম জহির এবং অপর জনের নাম কবির। তাদের কাজই নাকি যাত্রীদের কাছ থেকে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নেয়া। আমার ছেলে ১০দিন ইজতেমায় দোকানদারী করে এ টাকা জোগাড় করেছে। আমি কই পাবো এই টাকা।

এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক জানায়, মোবাইলে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। খোঁজ খবর নিয়ে এ কাজের সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

0