ইমামের মাথা বিচ্ছিন্ন লাশ: যা লেখা আছে সুরতহালে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁয়ে মসজিদের ভিতর ইমামের মাথা বিচ্ছিন্ন লাশের সুরতহাল সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দুপুরে লাশটির সূরতহাল শেষ হয়। এখন চলছে লাশের ময়নাতদন্তের কাজ।

এসআই মো. অহিদ উল্লাহ সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, শ্যামলা বর্নের ২৬ বছর বসয়ী লোকটির নাম দিদারুল ইসলাম। পেশায় ইমাম। সে খুলনার তেরখাড়া থানার রাজাপুর গ্রামের আফসার ফরাজীর ছেলে।

ধারালো ছুড়ি দিয়ে জবাই করে দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন করা হয়। এছাড়া পীঠের বাম অংশের গাড়ের নীচে কাটা দাগ, বাম বাহুতে ৪ থেকে ৫টি লম্বা লম্বা টাকা দাগ, গলাসহ সাড়া শরীর রক্তাত্ব ছিলো। পাশাপাশি উভয় হাত ও পায়ের আঙ্গুল বাকানো ছিলো।

লাশটি উদ্ধারের সময় লুংগি ও বিছানাপত্র রক্তমাখা ছিলো।

এর আগে, সোনারগাঁ উপজেলার মল্লিকেরপাড়া এলাকায় জামে মসজিদে ফজরের আজান না দেওয়ায় এলাকার মুসল্লিরা মসজিদে খোঁজ করতে গিয়ে ইমামের মাথা বিচ্ছিন্ন মরদেহ দেখতে পায়। পরে পুলিশে খবর দিলে লাশটি উদ্ধার করে মরগে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার (তদন্ত) ওসি মো. হেলাল উদ্দিন জানান, ইমামের লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে, তবে কি কারণে কে বা কারা হত্যা করেছে, তা এখনো জানা যায়নি। তদন্ত অব্যাহত আছে অতিশীঘ্রই তা বের করতে সক্ষম হবো আশা করছি।

রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্ততি চলছিল বলে জানান ওসি।

0