ইসদাইরে দ্রুব হত্যা: ৩ জনের রিমান্ড, ৩ জনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লার ইসদাইরে দ্রুব দাস নামে এক ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৬ আসামীর মধ্যে তিনজনকে এক দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়া পৃথক আদালতে আরও তিন আসামী দিয়েছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বিকালে নারী ও শিশু আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল তিন কিশোরের ১দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলো- পিয়াস দাস (১৬), জয় চন্দ্র দাস (১৭) ও অন্তু চন্দ্র শীল (১৬)।

অপরদিকে রিপন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আলমের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে রিপন (১৭)। এছাড়া জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শামসুর রহমানের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে ইয়াসিন (১৬) ও রুদ্র চন্দ্র দাস (১৬)।

রিমান্ড ও জবানবন্দির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান।

এর আগে, বুধবার (১৮ মে) দ্রুব চন্দ্র দাসের (১৬) মৃত্যুর ঘটনায় দশজনের নাম উল্লেখ করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের পিতা মধব চন্দ্র দাস।

মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, তার একমাত্র ছেলে দ্রুব ইসদাইর রাবেয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। গত ১৭ মে সন্ধ্যায় বাসায় বসে পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত ছিল। রাত ৮টার দিকে সহপাঠী রিপন ও রুদ্র চন্দ্র দাস বাসায় এসে তাদের অপর এক সহপাঠী জন্মদিনের গিফট কেনার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। রাত সাড়ে আটটার দিকে রাবেয়া স্কুলের সামনে রাস্তায় পৌঁছালে নিহতের সহপাঠী রিপন ও রুদ্র চন্দ্র দাস ও অভিযুক্ত আসামিসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন হাতে ছোড়া চাকু, সুইচ গিয়ার চাকু, লোহার পাইপ অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে দ্রুবকে মারধর করে। এমন সময় অভিযুক্ত ইয়াসিন তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে দ্রুবকে ছুরিকাঘাত করে।