ঈদেও টিকেট বিক্রি কম: না.গঞ্জে লোকসানের মুখে দূরপাল্লার পরিবহন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: অনেকেই বাসের অপেক্ষায় দীর্ঘ সময় বসে আছে। বাস পেলেও অনেক ক্ষেত্রে বসার সেট মিলেনি কারো কারো। আবার কোন কোন সময় টিকেট ছিল যেন সোনার হরিণ।

এই অবস্থা প্রায় প্রতিবছরই ঈদের এক সপ্তাহ পূর্বের। এবার ঈদের আর মাত্র ৩ দিন বাকি। অথচ এখনও যাত্রী সংকটে ভুগছে নারায়ণগঞ্জের দূরপাল্লার কাউন্টার গুলো।

নগরবাসীর দাবি, ‘বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস এবার গ্রামে যাওয়ার সুযোগ কেড়ে নিয়েছে’।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নগরীর ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশেই চানমারি এলাকাতে বেশ কিছু দূরপাল্লার বাস কাউন্সার রয়েছে। সেখানে বাস এসে দাঁড়িয়ে আছে। কিন্তু ঈদের এই সময়ে যাত্রীর দেখা নেই।

বাসে অপেক্ষা করা এক যাত্রী রোমান আহম্মেদ বলেন, প্রতিবছর কোরবানীর ঈদ পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়িতে উৎযাপন করেছি। এবছর বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস গ্রামে যাওয়ার সেই সুযোগ কেড়ে নিয়েছে। তাই প্রয়োজনিয় কাজে স্ত্রী ও বাচ্চাকে রেগেই গ্রামে যাচ্ছি। খুব দ্রুত ফিরেও আসবো।

চানমারিতে শহরের পিংকি পরিবহনের কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা আজম উদ্দিন বলেন, গত বছরের তুলোনায় এবারের যাত্রী অনেক কম। অগ্রীম টিকেট তো দূরে থাক। বর্তমানের টিকিটই আশা অনুযায়ী বিক্রী হচ্ছে না। নারায়ণগঞ্জ থেকে বগুরা, নওগা, রংপুর এমন কি চট্টগ্রাম সিলেটগামী বাস যাত্রীদের সল্পতার কারনে কমিয়ে ফেলা হয়েছে। বাস আছে কিন্তু যাত্রী নেই। তাই আমাদের রুটে রাতে মাত্র ২ টি বাস চলে।

শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা শরিফ ইসলাম বলেন, যাত্রী কম আগের থেকেই। টিকিট যা এনেছিলো তার কিছুই বিক্রি হয় নাই। সামনে কলকারখানা বন্ধ করলে হয়তো যাত্রি বাড়তে পারে। রোজার ঈদেও মানুষ বাড়ি গেছে কিন্তু এই ঈদে এখন পর্যন্ত তেমন ভীর দেখছি না। করোনার জন্য আমরা স্বাস্থ্যবিধির ব্যবস্থা রেখেছি।

 

এলএন/ওআরএন ০৭২৯-০১

0