ঈদের ছুটিতে ‘না.গঞ্জ থেকে যাতায়াত’ প্র‌শ্নে যা বল‌লেন এসপি. . .

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: করোনা সংক্রমণ বিস্তার প্রতিরোধে এবারের ঈদের ছুটিতে নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যান্য স্থানে যাতায়াত বন্ধ রাখাতে সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে কোভিড-১৯ জাতীয় কারিগরি কমিটি। এ পরামর্শের সাথে একমত প্রকাশ করেছে জেলাটির স্বাস্থ্য বিভাগও। তবে, এখনও এমন কোন সিদ্ধানে যায়নি সরকার। জেলাটির পুলিশ সুপার বলছে, ‘নির্দেশ আসলে আমরা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবো’।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে গত ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশ সাধারণ ছুটি চলছিল। ৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। তবু ফাঁকফোকরে নারায়ণগঞ্জ থেকে আরেক জেলায় মানুষের চলাচল থামেনি সেই সময়। ওই অবস্থায় দেশে করোনাভাইরাসের ব্যাপক বিস্তারের জন্য ‘নারায়ণগঞ্জে কর্মরত শ্রমিক’দের দায়ী করেছিল অনেকেই। গত ঈদুল ফিতরেও লকডাউনের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্য জেলায় গিয়ে করোনা সংক্রমনের অভিযোগ ছিল বেশ।

প্রতিবছরই নারায়ণগঞ্জে কর্মরত শ্রমিকরা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে স্বজনদের সাথে ঈদ উৎযাপন করতে পারি জমান। মাত্র ১৯ দিন পর আবারও সেই ঈদ উল আযহা এসেছে মুসলমান ধর্মালম্বীদের সামনে। কিন্তু এবার বিশ্ব ব্যাপি ছড়িয়ে পড়া করোনার কারণে সব সমিকরণই পাল্টে গেছে।

১০ জুলাই কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে জাতীয় পরামর্শক কমিটি। তারা সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে, এবারের ঈদের ছুটিতে নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যান্য স্থানে যাতায়াত যেনো বন্ধ রাখা হয়। যদিও সরকার থেকে এখনও তেমন কোন সিদ্ধান্ত আসেনি।

তবে, জেলা করোনা সংক্রান্ত ফোকাল পার্সন ডা. জাহিদুল ইসলাম বলেন, নারায়ণগঞ্জ এখন আর হটস্পট নেই। কিন্তু অন্য জেলা গুলো এখনও হটস্পটে পরিনত হচ্ছে। তাই ঈদের ছুটিতে গার্মেন্টস ও অন্যান্য কলকারখানার কর্মীদের গ্রামের বাড়িতে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। এছাড়া অন্য জেলা থেকে জ্বর কাশি থাকলে নারায়ণগঞ্জে ভ্রমণ বা ব্যবসায়ীক কাজে না আসতে অনুরোধ করা হয়েছে।

এব্যাপারটি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. জাইদুল আলম লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ঈদের ছুটিতে নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যান্য স্থানে যাতায়াত বন্ধের নির্দেশ সরকার থেকে আমাদের এখনও দেয়নি। তবে, নির্দেশ আসলে আমরা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবো।

0