উইলসনের নাম মুছে দিলেন আইভী

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্বপাড় তথা বন্দরের প্রধাণ সড়কের নাম ছিলো উইলসন রোড। উইলসন ছিলেন নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান। পুরো নাম মি. এইচ টি উইলসন।

১৮৭৬ সালের ৮ই সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা ঘোষণার পর প্রথম পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। তৎকালীন সময়ে বিভিন্ন উন্নয়ণমূলক কাজে অবদানের কারণে জনগনের দাবির মুখে বন্দরের প্রধাণ সড়কের নামকরণ করা হয় উইলসন রোড। সেই বৃটিশ আমল থেকে প্রচলিত নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার প্রথম চেয়ারম্যান উইলসনের নাম এবার চিরতরে মুছে দিলেন বর্তমান মেয়র আইভী। উইলসনকে বাদ দিয়ে নিজের পিতা আলী আহাম্মদ চুনকার নামে সড়কের নামকরণ করলেন তিনি। সম্প্রতি উইলসনের নাম মুছে আলী আহাম্মদ চুনকা সড়ক লেখা স্থায়ী পাকা সাইনবোর্ড স্থাপণ করা হয়েছে বন্দরের বিভিন্ন এলাকায়। এনিয়ে হতবাক বন্দরের সাধারণ মানুষ। তারা এতোদিন ধরে যে সড়কের নাম উইলসন রোড হিসেবে জেনে আসছে, সেটি এখন বর্তমান মেয়রের পিতার নামে।

সিটি কর্পোরেশনের ওয়েবসাইট থেকে জানা গেছে, ১৮৭৬ সালে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভায় পরিণত হলেও ব্রিটিশ ভারতে বিভিন্ন সময় জারিকৃত পৌর আইনের বিভিন্ন ধারা প্রাচীন কাল থেকেই নারায়ণগঞ্জে কার্যকর ছিল। ১৯৫২ সালে পৌরসভাকে ৭.৫ বর্গমাইলে বিস্তৃত করা হয়। ১৯৫৭ সালে পৌরসভাকে ২০ টি ওয়ার্ডে বিভক্ত করে ১৯৫৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৭২ সালে পৌরসভাকে ১২টি ওয়ার্ডে পরিণত করা হয় এবং নারায়ণগঞ্জ ওয়ার্ডে তিনজন, বাকি সব ওয়ার্ডে দুইজন করে কমিশনার, দুইজন মনোনীত কমিশনার, একজন ভাইস চেয়ারম্যান ও একজন চেয়ারম্যানসহ সর্বমোট ২৯ জন সদস্য নিয়ে পৌর কমিটি গঠিত হতো। ১৮৭৬ সালের ৮ই সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা ঘোষণার পর প্রথম পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন মি. এইচ. টি. উইলসন। নারায়ণগঞ্জ পৌরসভায় প্রথম এদেশীয় নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন খানঁপুর মহল্লার সৈয়দ মোহাম্মদ মালেহ। সে সময় তিনি একজন বিদ্ব্যান ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত ছিলেন। অবশ্য এর পূর্বে ১৯০০ সালে মি. উইলসন পদত্যাগ করায় কিছু দিনের জন্য বাবু মহিমচন্দ্র গাঙ্গুলী চেয়ারম্যান পদে ছিলেন। ১৯০৭ সালের ডিসেম্বর মাসে নারায়ণগঞ্জ শহরে পৌরসভার তত্ত্ববধানে প্রথম বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ ব্যবস্থা চালু হয়। ১৯৯০ সালের জুলাই হতে এ সরবরাহ ব্যবস্থাটি ঢাকা ওয়াসার উপর ন্যস্ত হয়। ১৯৭৪ সালে স্বাধীন বাংলাদেশে নারায়ণগঞ্জ পৌর নির্বাচনে শ্রমিক নেতা আলী আহম্মদ চুনকা আওয়ামী লীগের প্রার্থী খোকা মহিউদ্দিনকে পরাজিত করে জয়ী হন। ২০০৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান হন আলী আহম্মদ চুনকার মেয়ে সেলিনা হায়াৎ আইভি। পৌরসভা বিলুপ্তি হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি এই পদে বহাল ছিলেন। ২০১১ সালের ৫ মে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা, সিদ্ধিরগঞ্জ পৌরসভা ও কদমরসূল পৌরসভাকে বিলুপ্ত করে ২৭টি ওয়ার্ডের সমন্বয়ে গঠিত হয় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন। নারায়ণঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রথম প্রশাসক নিয়োগ দেওয়া হয় শাহ কামালকে। ৩০ অক্টোবর ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জে প্রথম বারের মতো সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে সেলিনা হায়াৎ আইভি মেয়র হিসেবে জয়লাভ করেন। তিনি বাংলাদেশের সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নারী মেয়র।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান মি. এইচ টি উইলসনের নাম মুছে বর্তমান মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর পিতা আলী আহাম্মদ চুনকার নামে সড়কের সাইনবোর্ড দেখে স্থানীয়দের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। স্থানীয়রা জানায়, নারায়ণগঞ্জ শহরে আলী আহাম্মদ চুনকার নামে সড়ক আছে, মিলনায়তন আছে। এক সিটি কর্পোরেশনে কয়টা নাম লাগে? আমাদের সমস্ত কাগজপত্র সব কিছুতে বন্দরের এই সড়ক উইলসন রোড লেখা আছে দীর্ঘদিন ধরে। পিতার নামে সড়ক করে আইভী আমাদের দূর্ভোগের মধ্যে ফেলে দিলো।

এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা আমলের কাউন্সিলররা জানিয়েছে, আমাদের না জানিয়ে মন্ত্রনালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়ে বন্দরের উইলসন সড়কটি মেয়র আইভী তার পিতার নামে করেছে। এটা জনগনের সাথে প্রতারণা। চিরদিন কেউ এক চেয়ারে থাকেনা। আজকে তিনি যা করেছেন, ভবিষ্যতে অন্য কেউ মেয়র হলে একই পথে হাটবে। তখন হয়তো মুছে যাবে এই নামও।

২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম নবী মুরাদ বলেন, যখন এ সড়কটির নামকরন বাতিল করা হয়, তখন আমি কাউন্সিলর ছিলাম না। এতেকরে এখানকার মানুষের মনে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। সাইনবোর্ড দেখার পর আরও ক্ষোভ বেড়েছে।

২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধাণ বলেন, মি. উইলসন, সোনাবিবি’র নামে সড়কের নাম পূর্ণবহাল করা না হলে আমরা জনগনের পক্ষ থেকে আইনের আশ্রয় নিবো। তবু এ ধরনের কাজ করতে দিবোনা।

এব্যাপারে জানতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। তবে সিটি করর্পোরেশনের একটি সূত্র জানায়, সিটি করপোরেশনের বন্দরের ১৯ থেকে ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের রাস্তার নাম পরিবর্তন করে আলী আহাম্মদ চুনকার নামে নামকরণের জন্য মন্ত্রনালয়ের পাঠানো হয়েছিল। সেটি পাশ হয়ে এসেছে। জুলাই মাসে ওইসব এলাকায় হোল্ডিং ট্যাক্সের যে নোটিশ পাঠানো হয় সেখানে উইলসন ও সোনা বিবি সড়কের পরিবর্তে আলী আহাম্মদ চুনকা সড়ক লেখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।