উপজেলা নির্বাচন: মন্ত্রী গাজীর হস্তক্ষেপ বন্ধের দাবীতে ৬ প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীকের হস্তক্ষেপ করার অভিযোগ এনে তা বন্ধের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বি চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান সহ ছয় প্রার্থী। একই সঙ্গে তারা নির্বাচনী প্রচরণা ও গণসংযোগে বাধা প্রদানসহ কর্মীদের মারধর করার অভিযোগও তুলেছেন ।

শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে হানিফ খান মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ করেন প্রতিদ্বন্দ্বি ছয় প্রার্থী।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী তাবিবুল কাদির তমাল, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাডভোকেট স্বপন ভুইয়া, মোতাহার হোসেন নাদিম, নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসরিন আক্তার চম্পা, মোসাম্মৎ হ্যাপি বেগম ও শায়লা তাহমিনা বীথি।

লিখিত বক্তব্য পাঠ করে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী তাবিবুল কাদির তমাল অভিযোগ করেন, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের কোন সুষ্ঠু পরিবেশ নেই। স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রীর নগ্ন হস্তক্ষেপে চেয়ারম্যান পদে শাহজাহার ভুইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভিপি সোহেল এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফেরদৌসি আলম নীলাকে নিয়ে আওয়ামীলীগের তিনজনের একটি প্যানেল গঠন করেছেন। এই তিনজনের বাইরে কেউ এলাকায় কোন ধরনের প্রচার প্রচারণা চালাতে পারছেন না। তাদের কর্মী সমর্থকদের মারধর, মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ও ব্যানার-পোষ্টার লাগাতে বাধা প্রদানসহ মোবাইল ফোনে নানাভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে। ওই তিন প্রার্থীর প্যানেলের বাইরে কোন প্রার্থীর পক্ষে এজেন্ট নিয়োগ দেয়া হলে মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে এই ছয় প্রার্থী নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ সৃষ্টি ও মন্ত্রীর অবৈধ হস্তক্ষেপ বন্ধসহ নির্বিঘ্নে প্রচার-প্রচারণা চালানোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহবান জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত কাগজে সাত প্রার্থীর নাম থাকলেও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: হাবিবুর রহমান হারেজ অনুপস্থিত ছিলেন।

তবে এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবী করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক। মুঠোফোনে তিনি গণমাধ্যমকে জানান, সংবাদ সম্মেলনে যে সব অভিযোগ করা হয়েছে এর কোন ডকুমেন্ট তারা দেখাতে পারেনি। নির্বাচন পরিচালনা করছে নির্বাচন কমিশন। রূপগঞ্জে সবাই নিবিঘ্নে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন বলেও দাবী করেন তিনি।

0