উল্টো পথে ভিআইপি, নিয়ম মেনে ভুক্তভোগী!

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রাস্তা একটু ফাঁকা পেলে মোটরসাইকেলচালকেরা উল্টো পথে দিচ্ছেন ছুট। ব্যক্তিগত গাড়ি, সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ অন্যান্য যানবাহনও সুযোগ বুঝে উল্টো পথে চলছে। পুলিশ ও ভিআইপির গাড়িবহরও উল্টো পথে চলতে দেখা যায়।

সোমবার নগরীর অন্তত ২টি বড় ট্রাফিক মোড় ঘুরে দেখা গেছে, একটি রাস্তায় সামান্য যানজট তৈরি হলেই গাড়িগুলো উল্টো পথে চলতে শুরু করে। আবার অনেক অংশে যানজট না থাকলেও যাতায়াতের সুবিধার জন্য গাড়িগুলো চলে উল্টোপথে।


২নং গেইট এলাকার দেওভোগ আখড়া রোড। এই পথে জেলার বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি নিয়মিত যাতায়াত করেন। সোমবার বিকেলে এই পথের হালচাল দেখার সময় মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের একটি গাড়িকে উল্টো পথে চলতে দেখা গেছে। এর একটু পর একজন ভিআইপিকেও তাঁর গাড়ি নিয়ে উল্টো পথে যেতে দেখা গেছে।

চাষাড়া মোড়ে কথা হয় মোটরসাইকেলচালক মো. ফয়েজের সঙ্গে। তিনি বলেন, মোটরসাইকেল ছোট বাহন হওয়ায় সুযোগ পেলেই লোকজন উল্টো পথে চালায়। উল্টো পথে বিপদ হতে পারে, এটা অনেকে মাথায় রাখেন না। ব্যক্তিগতভাবে তিনি উল্টো পথে গাড়ি না চালাতে চেষ্টা করেন।

এ ছাড়া অনেক মোটরসাইকেলচালককে দেখা গেছে হেলমেট মাথায় না দিয়ে মোটরসাইকেলের হাতলে হেলমেট ঝুলিয়ে রাখতে।

এসময় উল্টো পথে মোটরসাইকেল চালানো এক ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, যানজট হলে অনেক সময় বসে থাকতে হয়। উল্টো পথে না চলে উপায় থাকে না। এটি অনেক বিপজ্জনক এবং দণ্ডনীয় জেনেও তিনি এ কাজ করেন।

আর মো. শাহীন নামের একজন রিক্সা আরহী বলেন, উল্টো পথে যারা চলতে পারে এ দেশে তারাই ভিআইপি। সোজা বা নিয়ম মেনে যারা চলেন তারাই ভুক্তোভুগি।

দুই নং গেইটে এক পথচারী রাসেল বলেন, ভিআইপিদের জনগণের কথা চিন্তার সময় নেই, কারণ কাউকে জবাবদিহীতা করতে হয় না।

0