একটি মহল বসে নাই, যড়ষন্ত্রে লিপ্ত আছে: আইভী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আমি সিটি করপোরেশনের প্রতিটি কবরস্থানে ১০ শতাংশ করে জায়গা মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বরাদ্দ করে দিয়েছি। পৌরসভার সময় মুক্তিযোদ্ধাদের ট্যাক্স মওকুফ করে দিয়েছিলাম, সিটি করপোরেশন হওয়ার পরও মওকুফ করেছি, এখন আবার পানির ট্যাক্স মওকুফ করার কথা দিয়েছি, করেও দিবো।

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে মর্গ্যান উচ্চ বিদ্যালয়ে এ কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। এ সময় মুক্তিযোদ্ধাদের বরাবরই পাশে পাওয়ায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের আয়োজনে অনুষ্ঠান শেষে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে চেক তুলে দেওয়া হয়।

সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, বাংলাদেশে বহু কাজ হচ্ছে, কিন্তু একটি মহল বসে নাই। কি ভাবে এই সরকারকে ছোটখাটো করা যায়, এই সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা যায়; সেই ভাবনায় অসম্ভব ভাবে যড়ষন্ত্রে লিপ্ত আছে। অথচ, এমন কোন সেক্টর নেই, যারা এই সরকারের থেকে বেনিফিসিয়ারি হচ্ছে না, নারীর ক্ষমতায়ন থেকে শুরু করে, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতাসহ প্রচুর কাজ করা হচ্ছে। কিন্তু আমাদের প্রচার একটু কম বলে আমরা অনেক সময় বলি, সরকার কি করছে? তাই সরকারের সেই কাজ গুলোর কথা সকলকেই তুলে ধরতে হবে। সরকার যখন আমাদের জন্য কিছু করছে, তখন আমাদেরও কিছু দায়বদ্ধতা রয়েছে। আপনারা জীবন বাজী রেখে এই দেশকে স্বাধীন করেছেন, এখন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য কাজ করছেন, তার জন্য আমাদের জীবন দিয়ে হলেও কাজ করতে হবে। যতই ষড়যন্ত্রই হোক না কেন পুনরায় ২০২৩ সালে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতিক)।

বিশেষ অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মঞ্জুরুল হাফিজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান (পিপিএম) প্রমুখ।