একদিনে পিতা-পুত্রের মৃত্যু, চিকিৎসা নিয়ে পরিবারের ক্ষোভ: এলাকায় শোকের সাথে আতঙ্ক

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বাবার পূর্বে ছেলের মৃত্যু! কথাটি শুনলে মন শিউরে উঠে। আর যদি জানা যায়, ছেলেটি ছিল পরিবারের একমাত্র পুত্র সন্তান তা হলে তো কোন কথাই নেই। তিন মেয়ের মধ্যে একজনের বিয়ে হলেও বাকিরা অবিবাহিত। এরকমই অবস্থায় হৃদয় কেঁপে উঠবে যদি জানা যায় ছেলের মৃত্যু শোকে ৩ঘন্টার মাথায়, না ফেরার দেশে চলে গেলেন বাবা। এমন হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৫নং ওয়ার্ডে।

১১মে (সোমবার) ভোর ৬টার দিকে জ্বর, সর্দির উপসর্গ নিয়ে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন রিমন সাউদ(২৫)। রিমনে সাউদের মৃত্যুর ৩ঘন্টার মাথায় স্ট্রোক করে না ফেরার দেশে চলে গেলেন রিমন সাউদের বাবা ইয়ার হোসেন(৭০)।

দুপুরেই ইয়ার হোসেনের লাশের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে কাউন্সিলর সাদরিলের টিম। পরবর্তীতে তারা করোনা উপসর্গ থাকায় ৩-৪ঘন্টা পর ঢাকা থেকে রিমনের লাশ এনে বাদ আসর সাইলারোড ঈদগাহ ময়দানে পিতা-পুত্রের একত্রে জানাযা সম্পন্ন করে। এবং পরে সাইলোরোড কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মুহাম্মদ সাদরিল জানান, দক্ষিণ আজিবপুর এলাকার বাসিন্দা রিমন সাউদ ভোরে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছে। যেহেতু, মৃত্যুর ৩-৪ঘন্টা পর মৃতের শরীরে ভাইরাস থাকে না। তাই আমি আমার টিম ৩-৪ঘন্টার পর ঢাকা থেকে লাশ সংগ্রহ করে আনে। পরবর্তীতে লাশের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে আমার টিমের মাধ্যমে পিতা-পুত্রের দাফন সম্পন্ন করি।

দুপুরে মৃত রিমনের চাচাতো ভাই মাসুম সাউদ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের দেশে কোন চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই। রাত ৩টার দিকে অসুস্থ্য বোধ করলে আমার চাচাতো ভাই রিমন সাউদ নিজ বাড়ীর ২য় তলা থেকে পায়ে হেটে গাড়িতে উঠে। পরে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাই। কিন্তু করোনার উপসর্গ জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকার কারণে কোন হাসপাতালে ভর্তি নেয় নাই। পরে আমরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ভোরের দিকে সেখানেই তার মৃত্যু হয়। এদিকে ছেলে মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে হার্ট এটার্ক করেন বাবা হাজী ইয়ার হোসেন। বাবাকেও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকালে তিনিও মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

হাজী ইয়ার হোসেন সিদ্ধিরগঞ্জের সরদারপাড়া মসজিদ কমিটির সভাপতি ছিলেন। এদিকে একই দিনে বাবা ও ছেলের এমন করুণ মৃত্যুর খবরে সদ্ধিরগঞ্জের সরদারপাড়া এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া । সেই সাথে এলাকাবাসী করোনা নিয়ে আতঙ্কও প্রকাশ করেছে।

 

এলএন/এইসএস/০৫১১-০৯

0