এনসিসি নির্বাচনে কাজ করবে আরও ১৪ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন উপলক্ষে ১৪ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়ে আইন শাখার সহকারী সচিব স্বাক্ষরিত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।


প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) নির্বাচন বিধিমালা, ২০১০ এর বিধি ৮৬ তে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নির্বাচন কমিশন, নারায়ণগঞ্জের সিটি নির্বাচনে ১৪ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ আইন ও বিচার বিভাগ, আইন ও বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শক্রমে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। পেনাল কোডের অধীনে তারা মামলা নিয়ে সংক্ষিপ্ত বিচার কাজ পরিচালনা করতে পারবেন। এ লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি ভোট সুষ্ঠু করতে ১৪ জন্য জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তারা ভোটগ্রহণের পূর্বের দুদিন, ভোটগ্রহণের দিন ও ভোটগ্রহণের পরের দুই দিন অর্থাৎ ১৪ জানুয়ারি থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট ৫ দিন নির্বাচনী এলাকায় কাজ করবেন।

এর মধ্যে ১ ও ২ নং ওয়ার্ডে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ বদিউজ্জামান, ৩ ও ৪ নং ওয়ার্ডে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. কাউছার আলম, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম শামসাদ বেগম, ৭ ও ৮ নং ওয়ার্ডে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ শামছুর রহমান, ৯ ও ১০ নং ওয়ার্ডে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. নূর মহসীন, ১১ ও ১২ নং ওয়ার্ডে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান মোল্লা, ১৩ ও ১৪ নং ওয়ার্ডে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মোহাম্মদ মোহসেন, ১৫ ও ১৬ নং ওয়ার্ডে নরসিংদী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেলোয়ার হোসাইন, ১৭ ও ১৮ নং ওয়ার্ডে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান, ১৯ ও ২০ নং ওয়ার্ডে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাকিবুল হক, ২১ ও ২২ নং ওয়ার্ড জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাহমাদুল হাসান খান, ২৩ ও ২৪ নং ওয়ার্ড মুন্সীগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মানিক দাস, ২৫ ও ২৬ নং ওয়ার্ড সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল ইউসুফ, ২৭ নং ওয়ার্ডে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইফতি হাসান ইমরান দায়িত্ব পালন করবেন।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৬ জানুয়ারি। সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল ১৫ ডিসেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাই হয়েছে ২০ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ছিল ২৭ ডিসেম্বর।