এনসিসি বাজেট : ফুটওভার ব্রিজ চায় মানুষ

0

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ শহরের সবচেয়ে ব্যস্ততম এলাকা চাষাঢ়া। এ মোড়ে মানুষ সড়ক পার হয় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। চারদিক থেকে চলাচল করা গাড়ি আর অসংখ্য রিকশার মাঝে থাকা সামান্য ফাঁকা দিয়ে চলতে হয় পায়ে হাঁটা পথিককে। এ মোড় পার হতে যুব বয়সীদেরই হিমশিম খেতে হয় আর বৃদ্ধ ও শিশুর বেলায় চাষাঢ়া মোড় এক আতঙ্কের বিষয়। প্রতিদিনই এখানে ছোট খাটো দুর্ঘটনা লেগে থাকে। সচেতন মহলের মতে, বড় ধরনের কিছু ঘটার আগেই চাষাঢ়ায় ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ জরুরী।
রোববার (১৪ জুলাই ) এনসিসির বাজেট ঘোষণা করা হবে। এ বাজেটে ফুটওভার ব্রিজ থাকবে কিনা এমন আলোচনা হচ্ছে শহরের বিভিন্ন জায়গায়। অনেকের মতে, এনসিসি যে পরিমাণ বাজেট দেয় তাতে এখানে ফুটওভার ব্রিজ করা কোন বিষয় না।
সরকারি তোলারাম কলেজের শিক্ষার্থী ও আমলাপাড়া এলাকার বাসিন্দা নাদিম এর মতে, সড়ক পারাপারের ক্ষেত্রে চাষাঢ়া গোল চত্বর শহরের মধ্যে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। প্রতিদিন কলেজে যেতে এ সড়ক হেঁটে পার হতে গিয়ে অনেক ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়।
ইসদাইরের বাসিন্দা তাসলিমা আক্তার জানান, মেয়েকে নিয়ে প্রতিদিন চাষাঢ়া মোড় পার হওয়ার সময় আল্লাহর নাম জপতে থাকি। আবার ফেরার সময়েও একই রকম চিন্তায় থাকি। তিনি প্রশ্ন রাখেন, দেশে বড় বড় ব্যয়ে কত উন্নয়ন হচ্ছে । এখানে একটি ফুটওভার ব্রিজ করতে আর কত টাকা লাগে।
চাষাঢ়ার সান্তনা মার্কেটের এক ব্যবসায়ী জানান, প্রতিদিন এ মোড়ে ছোট ছোট দুর্ঘটনা ঘটে। কখনও রিকশার ধাক্কা, কখনও লেগুনা, সিএনজির ধাক্কায় আঘাত পান পায়ে হেঁটে চলা মানুষ। তিনি বলেন, বাস, ট্রাক-কাভার্ডভ্যানের ফাঁকা দিয়ে যেভাবে মানুষ সড়ক পার হয় তাতে করে বড় দুর্ঘটনাও ঘটতে পারে।
এছাড়া স্যোশাল মিডিয়ায় নারায়ণগঞ্জের জনপ্রিয় ফেসবুক গ্রুপগুলোতে প্রতিনিয়ত ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের দাবি জানিয়ে পোষ্ট হচ্ছে।
তাই, সকলের প্রত্যাশায় মেয়র সুনজর দিবেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

0