এন‌সি‌সির ব্য‌তিক্রম উদ্যোগ: কিনবে এবার প্লাষ্টিক-পলিথিন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রতিরাতেই পলিথিনের স্তুপে পরিনত হয় বঙ্গবন্ধু সড়ক। এ সব পলিথিন অপসারণ করতেও হকার্সদের দি‌তে হয় টাকা। ত‌বে, সিটি করপোরেশনের একটি সিদ্ধান্ত ময়লা আবর্জনাকে করে দিয়েছে নিম্ন বিত্ত মানুষ গুলোর বাড়তি আয়ের পথ। পাশাপাশি পরিচ্ছন্ন নগরী গড়তেও রাখবে অবদান।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে নগরীর ২ নং রেল গেইটের উল্টো পাশে প্লাষ্টিক-পলিথিন ক্রয়ের কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়।

কর্তৃপক্ষ জানান, এখান থেকে প্রতি শনিবার ১৫ থেকে ২০ টাকা মূল্য দিয়ে কেজি প্রতি প্লাষ্টিক-পলিথিন ক্রয় করবে মেঘা অর্গানিক বাংলাদেশ। এ সকল বর্জ্য থেকে ডিজেল এবং পেট্রোলসহ বিভিন্ন ধরণের জ্বালানি তেল উৎপাদন করা হবে।

প্লাষ্টিক-পলিথিন ক্রয় কেন্দ্র উদ্বোধন কালে ১৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস জানান, ‘আমরা ওয়ার্ড পরিচ্ছন্ন করতে গিয়ে সবচেয়ে বড় সমস্যায় পরেছি পলিথিন নিয়ে। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু সড়কে পলিথিনের কারণে বৃষ্টির পানি নামতে চাইতো না। তাই মেয়র সাহেবের সিদ্ধান্তে প্রাথমিক পর্যায়ে এই ওয়ার্ডের হকাদের ফেলা পলিথিন সংগ্রহের কাজ শুরু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য ওয়ার্ডেও হবে। পাশাপাশি যে সকল হকার পলিথিন না বিক্রি করে ফেলে রাখবে; তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেঘা অর্গানিক বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিজানুর রহমান, সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগের পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মো. আলমগীর হিরনসহ পরিচ্ছন্ন বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এদিকে, পলিথিন বিক্রি করে বাড়তি রোজগার হওয়ায় খুশি হকার ও দোকানীরা। সুগন্ধা বেকারীর কর্মরত মামুন জানান, আমি বিষয়টি জানতাম না। আজকেই সকলকে জানিয়ে দিবো; পলিথিন নির্দেষ্ট স্থানে রাখতে। যাতে প্রতি সপ্তাহে বিক্রি করতে পারি।

আর মেঘা অর্গানিক বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিজানুর রহমান জানান, আমরা এক কেজি পলিথিন থাকলেও ক্রয় করবো। আপনারা প্রতি সপ্তাহে শনিবার এখানে (২নং রেল গেইট) পলি কিংবা প্লাস্টিক নিয়ে আসলে আমরা কিনে নিয়ে যাবো।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ফতুল্লার পঞ্চবটি এলাকায় সিটি কর্পোরেশনের জৈব সার উৎপাদন কেন্দ্রে প্লাস্টিক ও পলিথিন বর্জ্য দিয়ে ডিজেল এবং পেট্রোলসহ বিভিন্ন ধরণের জ্বালানি তেল উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর থেকে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পলিসংগ্রহ করতো। এখন সিটি করপোরেশনের সিদ্ধান্তে পরিচ্ছন্ন নগরী গড়ার স্বার্থে হর্কাদের থেকে পলি ক্রয় করা শুরু হয়।

0