এবার কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সেক্রেটারি হতে ‘স্ট্যান্ডবাজ’ রনির দৌঁড়ঝাপ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দলের কর্মসূচিতে দেখা না গেলেও ফটো সেশনে দেখা যায় সবার আগে। ফেসবুকে উল্টো পাল্টা কোথা বলেও আলোচনায় রাখতে চান নিজেকে। তার উপর আবার আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। তাই অনেকের কাছে স্ট্যান্ডবাজ বলেও খ্যাত রয়েছে। অথচ, কুসিদজীবী শাহ আলমের পদলেহন করে যোগ্যতা না থাকলেও হয়েছেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি।

এবার কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক পদ বাগিয়ে নিয়ে দৌঁড়ঝাঁপ শুরু করেছেন মশিউর রহমান রনি। এ নিয়ে জেলাজুড়ে বিএনপির কর্মী সমর্থকদের মধ্যে চলছে ব্যাপাক সমালোচনা।

সূত্র বলছে, বৃহত্তর পশ্চিম মাসদাইর আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান প্রধান হচ্ছেন মশিউর রহমান রনির মামা। এই পরিচয়েই অতীতে সর্বত্র দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তিনি। এছাড়া বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাফেল প্রধান এবং মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ প্রধান হচ্ছেন রনির মামাতো ভাই।
শুধু তাই নয়, বিএনপির রাজনীতির সাথে এক সময় সম্পৃক্ত থাকলেও গেল নির্বাচনে সাংসদ শামীম ওসমানের হাতে ফুলের তোড়া তুলে দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে আওয়ামী লীগের যোগদান করেন এনায়েত নগর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আতাউর রহমান প্রধান। তিনিও রনির মামাতো ভাই।

স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে, আওয়ামী লীগ ঘরোনা বা পরিবারের লোক মশিউর রহমান রনিকে যদি কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হয়েই যান তাহলে, বিএনপি যতটা না লাভবান হবে, তার থেকে বেশি লাভবান হবে আওয়ামী লীগ। বিশেষ করে তার পরিবারের যারা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সরাসরি সম্পৃক্তি রয়েছে তারা কোনো না কোনো সময় সুরক্ষা পাবেন এবং নানা ভাবেই সুবিধাভোগী হবেন।

সূত্রগুলো আরও বলেন, বিএনপির বর্তমান যে অবস্থা চলছে তা আওয়ামী লীগের সাথে লেজুরবৃত্তি করা ব্যক্তিদের হাতে নেতৃত্ব তুলে দেওয়ার কারণে। তাই তারা দাবি করেন, আওয়ামী লীগ পরিবারের কোনো ব্যক্তিকে যাতে নতুন করে গুরুত্বপূর্ণ পদে পদায়ন করা না হয়। তাহলে আর এই দলটি কখনোই ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না বলেই মনে করছেন তারা।

0