এবার না.গঞ্জের দূর্গা মণ্ডপে ‘দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার’ আন্দোলন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মেয়র আইভীর পরিবারের দখলে থাকা দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষায় দাবি উঠেছে এবার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উৎসব দূর্গাপূজায়। একই সাথে মণ্ডপে মণ্ডপে অসাম্প্রদায়িক শেখ হাসিনার বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে উঠেছে আওয়াজ।

সনাতন ধর্মালম্বীদের ৪টি ধর্মীয় সংগঠনের ৮টি শাখা থেকে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন মন্ডপে মন্ডপে গিয়ে এমন কথা শোনা যায়।

এ সব দাবি জানিয়ে ব্যানারও লাগিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট ও বাংলাদেশ যুব ঐক্য পরিষদের নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর শাখার নেতা কর্মীরা।

বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী, হিন্দু ধর্মীয় কাজে উৎসর্গ করা জমি (দেবোত্তর জমি) ক্রয়, বিক্রয় বা হস্তান্তর করার নিয়ম নেই। অথচ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর পরিবারের সদস্যরা ক্রয় সূত্রে লক্ষ্মীনারায়ণ আখড়ার দেবোত্তর সম্পত্তি জিউস পুকুরের মালিক দাবি করছেন। এ নিয়ে ২০২০ সালের ১১ নভেম্বর রাজপথে নেমেছিলেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতাকর্মীরা। এরপর ২০২১ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি দখলকৃত পুকুরের পাড়ে বিক্ষোভ ও সমাবেশ করেছে হিন্দু সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার নারী-পুরুষ।

এবার পূজামন্ডপ গুলোতে ব্যানার সাটিয়েছে সংগঠন গুলো। ব্যানারে লেখা হয়েছে, সাম্প্রদায়িক শক্তি মেয়র আইভী ও তার পরিবার কর্তৃক দখলকৃত লক্ষ্মীনারায়ণ আখড়ার দেবোত্তর সম্পত্তি জিউস পুকুর অবিলম্বে ফিরিয়ে দাও, দিতে হবে’।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের নারায়ণগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার শিখন বলেন, ‘বিগত সময় মেয়র আইভী ও তার পরিবারের সদস্যদের কবল থেকে দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার দাবিতে আন্দোলন করে এসেছি। তারই ধারাবাহিকতায় ৪ সেপ্টেম্বর আমাদের পূজা উদযাপন পরিষদের মিটিং সিদ্ধান্ত হয়, পূজার আগে যদি মেয়র মহদয় সম্পত্তির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত না নেয়, তাহলে আনন্দ উৎসবের মধ্যেও জমি রক্ষার দাবি তোলা হবে। সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন এ আন্দোলন চলছে। আমাদের সাথে বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট ও বাংলাদেশ যুব ঐক্য পরিষদ যুক্ত হয়েছে।’

0