এবার না.গঞ্জে আসছে ভারতের ‘এমভি মহাবাহু’

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ক্রুজশিপ চালু সংক্রান্ত এমওইউর আওতায় ভারতের আরেকটি জাহাজ নারায়ণগঞ্জে প্রবেশ করবে। ‘এমভি মহাবাহু’ নামের এই জাহাজটি মোট নয়জন পর্যটক নিয়ে বাংলাদেশের আংটিহারা সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করে।

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যাত্রী ও পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচলে জন্য একটি এমওইউ স্বাক্ষর হয়েছিল গত বছর। এর আওতায় প্রায় ৭০ বছর পর গত ২৯ মার্চ বাংলাদেশ থেকে ‘এমভি মধুমতি’ এবং কলকাতা থেকে আরেকটি ‘এমভি বেঙ্গল গঙ্গা’ নামে জাহাজ বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। এরপর বর্ষা শুরু হয়ে গেলে দুই দেশের মধ্যে জাহাজ চলাচল বলতে গেলে বন্ধ হয়ে যায়।

তবে এমওইউর আওতায় স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি)-এর মাধ্যমে কোস্টাল প্রটোকল রুটে চলাচলের জন্য বিআইডব্লিটিসির কাছ থেকে গত ২৯ আগস্ট ভয়েস পারমিশন নিয়ে ভারতীয় ফ্ল্যাগ ক্রুজ ভেসেল ‘এমভি মহাবাহু’ গত ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে কলকাতা থেকে যাত্রা করে।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বিদেশি পর্যটকবাহী এই জাহাজে যাত্রী আছেন মাত্র নয়জন। এর মধ্যে দুজন আমেরিকা, দুজন ইংল্যান্ড, দুজন কানাডা এবং তিনজন ভারতীয় পর্যটক রয়েছেন। ইতোমধ্যেই জাহাজটি আংটিহারা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। এটি মোংলা, চাঁদপুর হয়ে নারায়ণগঞ্জ আসবে। পরে ঢাকা, মাওয়া, আরিচা, সিরাজগঞ্জ, বাহাদুরাবাদ, চিলমারী হয়ে বাংলাদেশের দইখাওয়া সীমান্ত দিয়ে ভারতের গোয়াহাটি পর্যন্ত যাবে। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর জাহাজটি বাংলাদেশের দইখাওয়া সীমান্ত অতিক্রম করে ভারত সীমান্তে প্রবেশ করবে।
নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মনোজ কান্তি বড়াল গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, এই মহাবাহু ক্রুজশিপটি গত ২৯ এপ্রিল আসামের ধুবরী নৌবন্দর থেকে যাত্রা করে গোয়াহাটি হয়ে বাংলাদেশে চিলমারীর দইখাওয়া সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করে ২ মে। এরপর এটি চিলমারী, ঢাকা, বরিশাল, মোংলা, সুন্দরবন, আংটিহারা হয়ে গত ১৫ মে কলকাতা পৌঁছায়। ওই সময় জাহাজটিতে বিভিন্ন দেশের ১৩ জন পর্যটক ছিলেন। এটি ভারতের কলকাতা থেকে বাংলাদেশ হয়ে আবার আসামের গোয়াহাটি যাওয়া দ্বিতীয় জাহাজ।

0