এসপি হারুন’র আরও এক চ্যালেঞ্জ!

0

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ:

হারুন অর রশীদ। নারায়ণগঞ্জের আলোচিত-সমালোচিত পুলিশ সুপার। কারো মতে, এসপি হারুন অপরাধীদের কাছে আতংক। কারো কাছে আপোষহীন (!)। আবার কারো কাছে মানবিক গুনের অধিকারী একজন মানুষ। সব বিশেষন ছাপিয়ে তিনি নারায়ণগঞ্জের মত একটি গুরুত্বপূর্ণ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার। তার কাছে নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রত্যাশা অনেক।

তাই হয়ত (?) কেউ কেউ তাকে দিয়েছেন সিংহাম উপাধী। তিনি আবার কারো কাছে নারায়ণগঞ্জের সিংহামও বটে। এরই মধ্যে তাদের প্রিয় সিংগামের কাছ থেকে চাওয়ার আগেই পেছেন বেশ কিছু। যেমন পেয়েছেন, হকারের দখল থাকা ফুটপাত। নগরীর কয়েকটি জুয়া আসরও গুড়িয়ে দিয়েছেন।

তাদের মতে, যে হকারদের অত্যাচারে রাস্তা দিয়ে সাধারন মানুষের চলাচল ছিলো অসাধ্য। সে রাস্তা হকারদের কবল থেকে মুক্ত করে তা জনগণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছেন। যে কাজটি সংসদ সদস্য কিংবা মেয়রের করার কথা ছিল, এসপি হারুন রাজনৈতিক নেতাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন। আপনারা যা পারেন না, আমি তা পারি। একটি ভাল কাজ করতে গিয়ে আপনারা যেভাবে প্রানঘাতি সংঘর্ষে জড়ান, পুলিশ বাহিনী তা বললেই হয়ে যায়। আসলে ভাল কাজ করতে বিরোধ কিংবা মারামারির প্রয়োজন পরে না।

এছাড়া বিভিন্ন এলাকার ছোট খাট সমস্যা নিয়ে তো প্রতিদিন এসপি অফিসে ভূক্তভোগীদের দীর্ঘ লাইন লেগেই আছে। সে সব সমস্যার অধিকাংশই সমাধান করে দেন এসপি হারুন।

এবার নারায়ণগঞ্জের সিংহামের কাছে নগরবাসীর নতুন একটি চাওয়া। সেই চাওয়ার প্রতি সম্মান দেখাতেও নগরবাসী আহ্বান জানিয়েছেন। সেই দাবিটিও হলো ফুটপাত নিয়ে। নগরবাসী হকারদের কবল থেকে ফুটপাত ফিরে পেয়েছেন নগরবাসী। কিন্তু নগর মাতার কবল থেকে ফুটপাতের দখল ফিরে পান নি! শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের ডিআইটি সংলগ্ন এলাকায় মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পিতার এক সময়ের নগর পিতা প্রয়াত আলী আহাম্মদ চুনকার নামে নির্মিত আলী আহাম্মদ চুনকা সিটি মিলনায়তনের সামনের ফুটপাত দখল করে রেখেছেন তিনি। অভিযোগ রয়েছে, নগর মাতার নেতৃত্বে এই মিলনায়তন নির্মানের সময়ে এক রকম জোর করে পথচারীদের চলাচলের রাস্তাটি দখল করে নিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্মাতা(ঠিকাদার) প্রতিষ্ঠান। এরপর থেকে এই ফুটপাত দিয়ে পথচারীর চলাচল বন্ধ।

নগরবাসী এই দখল থেকে মুক্তি চান। চান তাদের চলাচলের রাস্তা ফুটপাত থেকে দখলদারের অবৈধ দখল থেকে মুক্তি। এবার সাহসী সিংহাম কি করবেন? কারো হুমকীতে কী তিনি ভরকে যাবেন? নাকি তিনি আরও একটি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে নগরবাসীর হৃদয়ে জায়গা করে নেবেন?

0