‘কটুক্তিকারী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না’

0

ফতুল্লা করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: পবিত্র আল কোরআন ও ইসলাম ধর্মকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলার কারো কোন অধিকার নাই। ইসলাম ধর্মকে কটুক্তি করে অনেকে ইহুদীদের খুশি করতে চায়। সামান্য নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্যই তারা ইসলামকে আঘাত করে কথা বলে। ভবিষৎতে ইসলাম ধর্ম ও নবী মুহাম্মদ (সা:) কোন ব্যাক্তি বা গোষ্ঠি কটুক্তি করলে তাকে কোনভাবে ছাড় দেয়া হবে না।

ইসলাম ধর্ম কটুক্তিকারী সেফুর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে এক মানব বন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন। ফতুল্লার পঞ্চবটিতে শুক্রবার দুপুরে নিরাপদ খাদ্য আন্দোলন বাংলাদেশ এর আহ্বায়ক সাংবাদিক ফরিদ আহম্মেদ বাধনের সভাপতিত্বে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানব বন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, পঞ্চবটি বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন বায়তুল ইকরাম জামে মসজিদের খতিব মুফতি আহাম্মদ হুসাইন, জামিয়া হুসাইনিয়া মাদ্রসার শিক্ষক মুফতি নোমান, আব্দুল গফুর ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মাসুদ ভূঁইয়া, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক কল্যান শ্রমজীবী সমবায় সমিতি লিঃ এর কোষাধ্যক্ষ মনিরুল ইসলাম সরকার, নিরাপদ খাদ্য আন্দোলন বাংলাদেশ এর সদস্য নাহিদ আহম্মেদ, বাবু, সাব্বির, মিলন, তারেক, সোহাগ, আব্দুল গফুর মার্কেট কমিটির সদস্য মো.আবুনসহ কয়েক শত ধর্মপ্রাণ মুসলমান।

মুফতি আহাম্মদ হুসাইন বক্তব্যে বলেন, সিফাত উল্লাহ সেফু কোরআন ও ইসলাম ধর্মকে নিয়ে যে কটুক্তি করেছে তা কোন ধর্মপ্রাণ মুসলমান মেনে নেবে না। নাস্তিকরা ইসলাম ধর্মকে নিয়ে কটুক্তি করে হিরো হতে চায়। কিন্তু তারা নিজেও জানে না, তারা আল্লাহ, আল্লাহর রাসুল (সা:)কে কটুক্তি করে এক সময় ডাষ্টবিনের কীটে পরিনত হয়। সেফু যা করেছে তা ক্ষমার অযোগ্য। শুধু ইসলাম ধর্মকেই সে কটুক্তি করেনি, বাংলাদেশের সম্মানিত ব্যাক্তিদের নিয়েও সে বিভিন্ন সময় কটুক্তি করেছে। তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তিরও দাবী করছি।

সভাপতির বক্তব্যে বাধন বলেন, ইসলামকে বিতর্কিত করতে অনেক আগে থেকেই অনেকে চেষ্টা করছে। কিন্তু তাদের সেই চেষ্টা বার বার ব্যর্থ হয়েছে। ভবিষৎতেও তাদের মুখোশ উন্মোচন হবে। যারা আল্লাহ বানী কোরআন ও নবী মুহাম্মদ (সা:)কে নিয়ে কটুক্তি করেছে তাদের পরিনাম ভাল হয়নি। সেফুসহ তার দোষরদেরও পরিনাম ভাল হবে না। অবিলম্বে সেফুকে দেশে এনে তার দৃষ্টান্ত মূলত শাস্তি দাবী করছি।

0