ক্ষুধার্ত‌দের বি‌ক্ষোভ ‘করোনায় না, অনাহারে মরতে বসেছি’

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: স্বাস্থ বিধির তোয়াক্কা না করে করোনাভাইরাসের প্রভাবে কাশিপুরে বেকার হয়ে পড়া শ্রমজীবী লোকজন খাদ্যের জন্য বিক্ষোভ করেছেন। 
মঙ্গলবার (৮ এপ্রিল) সকাল থেকে দেওভোগ আমবাগান কাশিপুর ইউনিয়নের ৬ ও ৮ নং ওয়ার্ডের নারী-পুরুষ খাবারের দাবিতে এ বিক্ষোভ করেন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম রোগী পাওয়া গিয়েছিল নারায়ণগঞ্জেই; এখন ঢাকার পর নারায়ণগঞ্জেই রোগীর সংখ্যা বেশি।

সীমিত এলাকায় বেশি রোগী পাওয়ার ঘটনা যে স্থানগুলোতে ঘটছে, তার মধ্যে নারায়ণগঞ্জে সেই ক্লাস্টার পাওয়ার কথা আগেই জানিয়েছিল আইইডিসিআর।

পরিস্থিতি দেখে নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী কারফিউ জারি করতেও সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন। এরপর অঘোষিত লকডাউনের মধ্যে প্রশাসন কড়াকড়িও বাড়িয়েছিল।

তার মধ্যেও গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে যে নতুন ৪১ রোগী শনাক্ত হয়েছিল, তার মধ্যে ১৫ জনই নারায়ণগঞ্জের। এরপরই পূর্ণ লকডডাউন করা হল জেলাটিকে।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া দিনমজুর আল আমিন জানান, গত ২৬ মার্চ থেকে সরকার বলছে সবাই ঘরে থাকুন। আমরা বাড়িঘরে খাদ্য পাঠাব। কিন্তু আমরা এখনও কিছু পাইনি। বাধ্য হয়ে খাদ্যের জন্য রাস্তায় নামছি।

দিনমজুর জুহেরা বেগম বলেন, আমরা ঘরবন্দি। কাজকর্ম নেই, ঘরে খাবারও নেই। খাবার দেয়া তো দূরের কথা এলাকার চেয়ারম্যান মেম্বার কেউ কোনো খোঁজখবর নেন না। করোনায় না, আমরা অনাহারে মরতে বসেছি। খাবারের অভাবে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করছি।

0