করোনায় নিজ বাসস্থানে নামাজ আদায়ের নির্দেশে মন্ত্রণালয়ের

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: করোনা ভাইরাস বিস্তারে সর্বসাধারণ মানুষকে ইবাদত নিজ নিজ ঘরে পালনের নির্দেশ দিয়েছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

সোমবার (৬ এপ্রিল) জুমার নামাজের জামাতে ১০ জন ও প্রতি ওয়াক্ত নামাজে মসজিদে পাঁচজন যেতে পারবেন বলে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায়ের বিষয়ে নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ভয়ানক করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে মসজিদের খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেম বাদে অন্য সব মুসল্লিকে সরকারের পক্ষ থেকে নিজ নিজ বাসস্থানে নামাজ আদায় এবং জুমার জামাতে অংশগ্রহণের পরিবর্তে ঘরে জোহরের নামাজ আদায়ের নির্দেশ দেওয়া যাচ্ছে।

মসজিদে জামাত চালু রাখার প্রয়োজনে সম্মানিত খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেম মিলে পাঁচ ওয়াক্তের নামাজে অনধিক পাঁচজন এবং জুমার জামাতে অনধিক ১০ জন শরিক হতে পারবেন। জনস্বার্থে অন্য মুসল্লিরা মসজিদে জামাতে অংশ নিতে পারবেন না।

এছাড়াও একই সঙ্গে অন্য ধর্মের অনুসারীদেরও উপাসনালয়ে সমবেত না হয়ে নিজ নিজ বাসায় উপাসনা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মসজিদ, মন্দির, গীর্জা ও প্যাগোডারসহ ধর্মীও প্রতিষ্ঠানে জনসমাগমের মাধ্যমে এ রোগ বিস্তার ঘটছে। পার্শ্ববর্তী দেশ গুলোতেও এ ধরনের বিস্তার ও প্রাণহানির ঘটনা উদাহরণ বিদ্যমান। ইতিমধ্যে মুসলিম স্কলারদের অভিমতের ভিত্তিতে পবিত্র মক্কা মুকাররমা ও মদিনা মুনাওয়ারাসহ বিশ্বের প্রায় সব দেশের মসজিদে মুসল্লিদের আগমন সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ রোগের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রিত না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের মসজিদ,মন্দির গীর্জা ও ধর্মীও প্রতিষ্ঠান সর্বসাধারণের আগমন বন্ধ রাখার জোর পরামর্শ দিয়েছেন।

এর আগে, ২৯ মার্চ ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর আহবানে এ বিষয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমগণ মিলিত হয়ে মসজিদে মুসল্লিদের উপস্থিতি সীমিত রাখার ব্যাপারে সর্বসম্মতভাবে আহ্বান জানিয়েছেন। তৎপরবর্তীতে পরিস্থিতি দ্রুত ভয়ংকর অবনতির দিকে যাচ্ছে। বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে সর্বোচ্চ পর্যায়ে সকলের সঙ্গে পরামর্শক্রমে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

0