‘খানপুরে ৫০০ শয্যা মেডিকেল কলেজ অবশ্যই হবে’

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ইচ্ছা করলে আমরা ব্যবসায়ীরা, নারায়ণগঞ্জে একটি প্রাইভেট করোনা হাসপাতাল তৈরি করে ব্যবসা করতে পারতাম। কিন্তু আমরা সেটা করিনি। আমরা চেষ্টা করছি সরকারী হাসপাতালটির উন্নয়ন করার জন্য।

খানপুর হাসপাতালে বৃহস্পতিবার ১০বেড বিশিষ্ট আইসিইউ সেবা’র উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন সেলিম ওসমান।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এই সংসদ সদস্য আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে প্রায় ২ কোটি টাকার মত একটি ফান্ড তৈরি করেছি। কিন্তু হাসপাতালটি সরকারী হওয়ায় আমাদের সেই অর্থ ব্যয় করতে সরকারী অনুমোদনের প্রয়োজন রয়েছে। আমরা এবার সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে অনুমোদন আনবো। আর এতে যদি পেছন থেকে কেউ বাঁধার সৃষ্টি করে তাহলে আমি এবং আমার ছোট ভাই এমপি শামীম ওসমান তাদের বিষয়টা দেখবা। আমি বেচে থাকতে নারায়ণগঞ্জের মানুষের কোন কষ্ট হতে দিবো না। আমি যদি মরেও যাই তাহলেও খানপুরে ৫০০ শয্যা মেডিকেল কলেজ অবশ্যই হবে।

করোনা মোকাবেলায় দরিদ্রদের সেবায় এগিয়ে আসার জন্য সরকার ব্যবসায়ীদের কোন নির্দেশনা দেননি। ব্যবসায়ীদের কাজ ব্যবসায়ীরা ঠিকই করছে। ঈদের সময় আপনারা কি কোথাও পেয়েছেন শ্রমিকদের বেতন ভাতা পরিশোধ করেনি ব্যবসায়ীরা। সরকার আমাদের কাছ থেকে ট্যাক্স বাড়িয়েছে আমরা কিভাবে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান টিকিয়ে রাখবো সেই চেষ্টা করে যাচ্ছি। ব্যবসায়ীরা আমাকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করছেন। প্রয়োজনে বিকেএমইএ সহ সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, নারায়ণগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, সহ সভাপতি মোর্শেদ সারোয়ার সোহেল এরা সবাই এগিয়ে আসবে।

খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার গৌতম রায়ের সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন, জেলা সিভিল সার্জন ইমতিয়াজ আহম্মেদ।

হাসপাতালটির আবাসিক চিকিৎসক ডাক্তার শামসুজ্জোহা সঞ্চয় এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- বিকেএমইএ প্রথম সহ সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, সহ সভাপতি মোর্শেদ সারোয়ার সোহেল, পরিচালক শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়া সাজনুসহ আরও অনেকে।

0