ক‌রোনায় আক্রান্ত হ‌য়ে যা বল‌লেন খোর‌শেদ. . .

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: করোনা ভাইরাস আতঙ্কে নারায়ণগঞ্জের অনেকই যখন ঘরে; তখন মানুষের পাশে অবিরাম ছিলেন কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খোরশেদ। প্রথমে হ্যান্ড সেনিটাইজার বিতরণ দিয়ে শুরু হয়। সময়ের সাথে সাথে সেবাদানের তালিকায় যুক্ত হয় দাফন, টেলিমেডিসিন, প্লাজমা সংগ্রহ, সবজী বিতরণ, মধ্যবিত্তের জন্য ভর্তূকি মূল্যে খাবার বিক্রিও। এ সকল কাজ করতে গিয়ে পান ‘করোনা বীর’ ক্ষেতাবও।

আজ সেই ‘করোনা বীর’ নিজেই ভয়ানক করোনা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে, নগরবাসীর জন্য আশার কথা হচ্ছে স্বশরীরে উপস্থিত না থাকলেও দিয়ে যাবে সেবা টিমের সদস্যরা।

১৩নং ওয়ার্ড সচিব মো. আলী সাবাব টিপু লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আগেও ২-৩ বার পরীক্ষা করা হলেও তার রিপোর্ট নেগেটিভ পাওয়া যায়। কিন্তু এবার তার করোনা পজেটিভ এসেছে। বর্তমানে তিনি বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন। এনসিসি মেডিক্যাল টিমের ডাক্তারদের সাথে তিনি পরামর্শ করে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ২৩ মে কাউন্সিলরের স্ত্রীরও করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে।

করোনায় আক্রান্তের খবরে এনসিসি ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খোরশেদ নিজের সামাজিক মাধ্যমে জানান, ‘আমার জন্য আমার আল্লাহই যথেষ্ট। আমি আল্লাহর ইচ্ছায় করোনা পজিটিভ হয়েছি। তাই আগামী ৪ দিন আমি স্বশরীরে উপস্থিত না থাকলেও আমাদের দাফন, টেলিমেডিসিন, প্লাজমা সংগ্রহ, সবজী বিতরণ, মধ্যবিত্তের জন্য ভর্তূকি মূল্যে খাবার বিক্রি ও ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ। আমার টেলিফোন ২৪ ঘন্টা খোলা আছে। যেকোন প্রয়োজনে আমাকে জানালে আমাদের টিম মেম্বাররা আপনাদের সমস্যা সমাধানে সচেষ্ট হবে।’

প্রসঙ্গত, এ যাবত তিনি ৬১টি মরদেহ দাফন করেছেন। বিভিন্ন জনের অনুরোধ নারায়ণগঞ্জের বাহিরে গিয়েও লাশ দাফন করেছে তিনি ও তার টিম মেম্বারা।

0