খাদ্য সহায়তা না পেয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে দুস্থদের বিক্ষোভ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সকলকে ঘরে অবস্থান করার বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা আসার পর কাজের অভাবে দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষরা আর্থিক ও খাবার সংকটে পড়েছে।

এদিকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সহায়তা না পেয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেওয়ানবাগে বন্দর স্টিল মিলের সম্মুখে (১৭ এপ্রিল) শুক্রবার সকাল পৌনে ১১টায় এনসিসি ২৭নং ওয়ার্ডের শত শত কর্মহীন, অসহায় ও নিম্ন আয়ের পরিবারের সদস্যরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন।

এসময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেওয়ানবাগ প্রান্তের দুই পাশেই কিছুক্ষণের জন্য যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে বন্দর থানাধীন ধামগড় ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর ইসতিয়াক রাসেল ও কাঁচপুর হাইওয়ে থানার সার্জেন্ট বাহারুল সোহাগ বিষয়টি উর্দ্ধতন মহলে জানানোর আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ তুলে নেন। পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়ে যায়।

বিক্ষোভ কর্মসূচিতে শ্রমিক লীগ নেতা আহাম্মদ আলী, আওয়ামী লীগ নেতা ইসলাম পলু, মুসলিম, মোস্তফা, হারুন মিয়া, রশিদ, মঞ্জুর সহ স্থানীয় ওয়ার্ডের কুড়িপাড়া, লালখারবাগ, চাঁপাতলী, সারেনসারবাগ, মুরাদপুর, হরিপুর, নাজিরগঞ্জ ও বঙ্গশাসন গ্রামের কমর্হীন ও অসহায় শত শত জনসাধারণ অংশ নেন।

বিক্ষোভকারীরা জানান, লকডাউন ঘোষণা করায় নিম্ন আয়ের কর্মজীবীরা আমরা কর্মহীন হয়ে পড়েছি। আমরা প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পাচ্ছিনা। খাদ্যের অভাবে না খেয়ে অত্র ওয়ার্ডের বাসিন্দারা বসবাস করছি। তাই বাধ্য হয়ে সড়ক অবরোধ করেছি। দ্রুত অত্র ওয়ার্ডের অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য পৌছানোর জন্য সিটি মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী, এমপি সেলিম ওসমান, এমপি শামীম ওসমান ও জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এবিষয়ে ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল জানান, খাদ্য সহায়তা না পেয়ে সড়ক অবরোধের বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা। সরকারি ও বেসরকারিভাবে যে পরিমাণ খাদ্যসামগ্রী আমার কাছে এসেছে, তা আমি সকল গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে তালিকা করে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে অসহায় ও কর্মহীনদেরকে পৌছে দিয়েছি। খাদ্য সহায়তা আবার আসলে বিদ্যমান তালিকা অনুযায়ী যারা পায়নি তাদের মধ্যে বিতরণ করা হবে।

0