`কর দিয়েও নাগরীক সুবিধা থেকে বঞ্চিত’ খোকন সাহার উদ্বেগ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ড্রেনের ময়লা রাস্তায় তুলে শুকান, সেই মলয়ার ধুলাবালির জীবাণু বাতাসে ছড়িয়ে মানুষ অসুস্থ হচ্ছেন। করোনা বৃদ্ধির পাশাপাশি বিভিন্ন হাসপাতাল, ক্লিনিকে রোগ জীবাণুতে আক্রান্ত হয়ে মানুষ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বাধ্য হচ্ছে। যা আমরা কামনা করি না। বিষয়টি খুবই উদ্বেগজনক।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নাগরীক সেবা নিয়ে রোববার (৪ এপ্রিল) এমন উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।

তাঁর ভাষ্য, ‘নগরবাসী নিয়মিত সিটি করপোরেশনকে কর দিয়েও নাগরীক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।’

খোকন সাহা বলেন, কিছু দিন যাবতই সিটির বিভিন্ন এলাকায় ড্রেন পরিস্কারের নামে ময়লা গুলো রাস্তায় উঠিয়ে রাখা হয়েছে। সেই ময়লা শুকিয়ে ধুলাবালিতে পরিনত হয়েছে। ধুলাবালির জীবাণু বাতাসে ছড়িয়ে মানুষ অসুস্থ্য হচ্ছে। করোনা বৃদ্ধির পাশাপাশি বিভিন্ন হাসপাতাল, ক্লিনিকে রোগ জীবাণুতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসার জন্য যাচ্ছে মানুষ। যা আমরা কামনা করি না। জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হচ্ছে নগরবাসীর। এই নগরের যারা দায়িত্বে। তারাই এ জন্য একমাত্র দায়ী। তাদের কারণেই আজকে এ সমস্ত বায়ুবাহিত রোগ জীবাণূ বৃদ্ধি পেয়েছে।

খোকন সাহা আরও বলেন, আমি বললে তো বলেন, খোকন সাহা বেশি কথা বলে। উনার কাছে আমার প্রশ্ন, উনার কাজ হচ্ছে নগরবাসীকে ১০০ ভাগ সুভিধা দেওয়া। অথচ, তিনি মানুষকে নাগরীক সুভিধা থেকে বঞ্চিত করে, ইস্যুটা অন্য দিকে নেওয়ার জন্য ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য রাখছেন। যা সাধারণ মানুষ ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেত্রীবৃন্দ কামনা করে না। আমি স্পষ্ট বলতে চাই। অবিলম্বে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন নগরী গড়ে তোলতে হবে। ধুলামুক্ত নগরী গড়ে তোলতে হবে। ড্রেনেজ সমস্যার সমাধান করতে হবে। কারণ, কয়েক দিনের মধ্যেই বৃষ্টি হবে। বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হবে নারায়ণগঞ্জে। মানুষ চলাচল করতে পারবে না। সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে অনুরোধ, নগরবাসীকে সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা যাবে না।

এ সময় খোকন সাহা বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়রসহ সকল জনপ্রতিনিধিদের এই করোনাকালিন সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহব্বান জানাচ্ছি। মানুষের সেবা করার জন্য ও স্যানিটাইজার সামগ্রী দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

0