গণধর্ষণের স্বীকারুক্তি দিলেন সেই ছাত্রলীগ কর্মীরা

0

ফতুল্লা করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বাড়ির পাশের দোকান থেকে সরিষার তেল কিনে ফেরার পথে কিশোরীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে অভিযুক্ত আসামীরা।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের মিল্টন হোসেনের আদালতে প্রধান আসামী মো. আব্দুল কাদের শান্ত ও আফতাবুজ্জামানের আদালতে অপর সহযোগী আবু বক্কর সিদ্দিক ওরফে শুভ স্বীকারুক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করেন।

শান্ত ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার মৃত এএম সামাদের ছেলে। আর শুভ একই এলাকার মৃত মিজানের ছেলে।

নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) কামাল হোসেন বলেন, উভয়েই ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। তারা আরও ধর্ষণকারীর নাম প্রকাশ করেছেন।

এর আগে ৪ আগস্ট ভোরে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় প্রধান আসামী মোঃ আব্দুল কাদের শান্ত ও অপর সহযোগী আবু বক্কর সিদ্দিক ওরফে শুভ’কে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১১ এর একটি অভিযানিক দল।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়, গণধর্ষণের শিকার কিশোরী তার পরিবারের সাথে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার রেলষ্টেশন এলাকায় বসবাস করছে। ওই কিশোরীর মা একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করে। গত ২৮ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টায় ওই কিশোরী সরিষার তেল কিনতে একা তার বাসার পাশে মুদি দোকানে যায়। ওই সময় ওই কিশোরীর পূর্ব পরিচিত মোঃ রাজন তাকে জোরপূর্বক ফতুল্লা রেলষ্টেশনের জোড়াপোল বালুর মাঠের নির্জন ও অন্ধকার স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে রাজন, শুভ, শান্ত ও অজ্ঞাত আরো ২/৩ জন মিলে ওই কিশোরীবে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। পর এ ব্যাপারে কাউকে কিছু না বলার জন্য ওই কিশোরীবে হুমকি দিয়ে বাড়ী পাঠিয়ে দেয়।

স্থানীয়রা জানান, অভিযুক্তরা সকলেরই এলাকাটিতে ছাত্রলীগ কর্মী হিসেবে বেশ পরিচিতি ছিলো। এছাড়া স্বেচ্ছাসেবক লীগের থানা সভাপতি ফরিদ আহম্মেদ লিটনের ভাগ্নে মোজাম্মেল বাবুর (ভাগ্নি বাবু) অধিনে তার মিছিল মিটিংয়েও যেতেন।

এ সংক্রান্ত নিউজ পড়তে ক্লিক করুন

ফতুল্লায় তেল কিনতে গিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

তেল আনতে গিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় আসামীরা ছাত্রলীগ কর্মী

ফতুল্লায় তেল কিনতে গিয়ে কিশোরী গণধর্ষনের শিকার

0