জনপ্রতিনিধিরাই বিল দিয়ে পাচ্ছে না ওয়াসার পানি

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘সিটি করপোরেশন জনগণের চাহিদা মিটাচ্ছে। সেই সাথে নানা উন্নয়নমূলক কাজ অব্যাহত আছে। তবে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মী আরও বাড়াতে হবে। আবার জনগণকে পরিচ্ছন্নতা সম্পর্কে সচেতন করতে হবে। ‘ এই এলাকাটা আমার, যত্নে নিবো আমিই’ কথাটি জনগণের মনে আনতে হবে। এ কাজের দায়িত্ব আমাদেরই নিতে হবে।’

শনিবার (৪ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় সিটি কর্পোরেশনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে লাইভ নারায়ণগঞ্জকে কথাগুলো বলছিলেন এনসিসির ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হান্নান সরকার।

সাক্ষাৎকারে ‘এনসিসির জন্যে জনগণ অতিরিক্ত কি কি সুবিধা পাচ্ছে?’ প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘আমার মতে জনগণ অনেক ধরণের সুবিধা পাচ্ছে। জনগণের স্বার্থে করা হয়েছে বড়-বড় সড়ক। সড়কে লাগানো হয়েছে এলইডি লাইট। আবার চিকিৎসা সেবাও বাড়ানো হয়েছে। আমাদের এলাকা (বন্দর শাহী মসজিদ, ঋষিপাড়া এনায়েতনগর) আবাসিক এলাকায় পরিণত হয়েছে। যার ফলে মানুষ এখানে বসবাস করে সাচ্ছন্দ বোধ করছে।’

নিজ ওয়ার্ড সম্বন্ধে কাউন্সিলর বলেন, ‘আমার এলাকা নিয়ে অনেক ধরণের পরিকল্পনা আছে। এই এলাকার পরিবেশ সুন্দর করতে। এখানকার প্রত্যেকটি রাস্তা-ঘাট আরও মজবুত করতে হবে। জনগণকে তৃপ্তি দিতে পারলে আমিও নিজের মাঝে তৃপ্তি পাই। সোনাকান্দা কবরস্থান সংস্কার কাজ, এনায়েত নগর রোড, ২টি পুকুর সংস্কার করা হবে। প্রত্যেকটি সড়কে পিচ ঢালাই করা হবে।’

কথা বলার এক পর্যায়ে চেহারায় কিছুটা অসন্তুষ্টি ভাব এনে তিনি বলেন, এলাকার সবচেয়ে বড় সমস্যা পানি। এখানকার মানুষ ওয়াসার পানি ঠিকমত পায়না। আমিও তাদের দলভূক্ত। অথচ পানির বিল দিচ্ছি সময়মতই। এবিষয়ে আমরা প্রতিনিয়ত ওয়াসা কর্মকর্তাদের কাছে অভিযোগ করছি। কিন্তু কোন ধরণের প্রতিকার পাইনি। এটা ওয়াসার ব্যার্থতা। তাদের সঠিক যন্ত্রপাতি ও লোকবল নেই। তারা পাবলিককে সেবা দিতে পারছে না। পরে বিষয়টি নিয়ে মেয়রকেও অবগত করা হয়েছে। তিনি আমাদের এখানে পানির পাম্প বসিয়ে দিবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন। ’

সবশেষে কাউন্সিলর হান্নান বলেন, ‘এলাকাবাসীর জন্যে আমি সদা নিয়োজিত। কারও কোন প্রয়োজন হলে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারে। তাদের কাজ দ্রুত করে দেবার চেষ্টা করবো।’

0