জিওরদানো ব্রুনোর মৃত্যুবার্ষিকীতে আলোচনাসভা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিজ্ঞান শহিদ জিওরদানো ব্রুনোর ৪শ’ ২১ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চ নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়েছে। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩ টায় ২ নং রেল গেট বাসদের কার্যালয় এই সভার আয়োজন করা হয়।

বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চের নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মোহসিনা সিথীর সভাপতিত্বে আলোচনা করেন বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চের উপদেষ্টা বাসদ নেতা আবু নাঈম খান বিপ্লব, বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চের উপদেষ্টা বর্ণমালা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ এর শিক্ষক আব্দুল খালেক, বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চের নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক নাসিমা সরদার, সংগঠনিক সম্পাদক রিনা আক্তার।

এ সময় নেতৃবৃন্দ বলেন, বিজ্ঞানী নিকোলাস কোপারনিকাস ষোড়শ শতাব্দিতে সূর্যকেন্দ্রিক বিশ্ব আবিষ্কার করেন। কিন্তু তৎকালীন খ্রীষ্ট ধর্মমত ছিল পৃথিবী কেন্দ্রিক বিশ্ব। ধর্মান্ধ গোষ্ঠীর চাপে কোপারনিকাস সেদিন এ সত্য মানুষের সামনে প্রচার করে যেতে পারেনি। কোপারনিকাসের মৃত্যুর পর ধর্মান্ধ গোষ্ঠীর রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে জিওরদানো ব্রুনো সেদিন এ অবিসংবাদিত তত্ত্ব প্রচারের কাজ করেন। এ অপরাধে ধর্মান্ধ গোষ্ঠী জিওরদানো ব্রুনোকে সাত বছর অন্ধ প্রকোষ্ঠে বন্দি করে রাখার পর ১৬০০ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি ইতালিতে আগুণে পুড়িয়ে হত্যা করে। এরপর থেকে বিজ্ঞান জগতে জিওরদানো ব্রুনো বিজ্ঞান শহিদ হিসাবে পরিচিত। জিওরদানো ব্রুনোর বৈজ্ঞানিক সত্য আজ দুনিয়াতে প্রতিষ্ঠিত।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, আমরা বর্তমান সময়ে আমাদের দেশেও ধর্মান্ধ কূপমণ্ডুক গোষ্ঠীর আষ্ফালন দেখতে পাই। শাসকগোষ্ঠী ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য ধর্মান্ধ মৌলবাদী শক্তিগুলোকে আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছে। বর্তমান সরকার মৌলবাদী হেফাজতে ইসলামের পরামর্শে পাঠ্যপুস্তক থেকে রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, শরৎচন্দ্রসহ অনেক বরেন্য কবি, লেখকদের লেখা বাদ দিয়েছে। বিজ্ঞান চর্চা, বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গি অর্জন ও সমাজ সচেতনার মধ্য দিয়ে শাসক গোষ্ঠীর এই প্রতিক্রিশীল পদক্ষেপ রুখে দিতে হবে।

0