জিসার সেই ইকবাল বড্ড একা,  কেউ তার জামিন চায় না

0
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সদর থানার আলোচিত জিসা মনি অপহরণ মামলায় জামিনে আছে জিসার কথিত প্রেমিক আব্দুল্লাহ, রকিব ও নৌকার মাঝি খলিলুর রহমান। তবে এখনো কারাগারে জিসার স্বামী ইকবাল। ইকবালের হয়ে এখনোও পর্যন্ত বিজ্ঞ আদালতে জামিন চায়নি কেউ। তার পক্ষে নেই কোনো আইনজীবী।


১৬ সেপ্টেম্বর (বুধবার) জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এড. ওয়াজেদ আলী খোকন লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, জিসা মনির স্বামী ইকবালের হয়ে এখনো পর্যন্ত কোন আইনজীবী জামিন চায়নি। তাই এখনো কারাগারে ইকবাল।

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আনিসুর রহমান এর আদালতে জামিন পান আব্দুল্লাহ ও রকিব। বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে একই আদালত থেকে জামিন পান খলিলুর রহমান।

এর আগে, ৩১ আগস্ট আসামি ইকবালকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে উঠালে বিজ্ঞ আদালত তা না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ৪ জুলাই ১৫ বছর বয়সী কিশোরী জিসা শহরের দেওভোগের থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায়  এক মাস পর ৬ আগস্ট থানায় অপহরণ মামলা করেন কিশোরীর বাবা জাহাঙ্গীর হোসেন।

ওই মামলায় পুলিশ আব্দুল্লাহ, রকিব ও নৌকার মাঝি খলিলুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে।

৯ আগস্ট আব্দুল্লাহ, রকিব ও নৌকার মাঝি খলিলুর রহমান জিসা মনিকে অপহরণ, ধর্ষণ ও হত্যা করে লাশ শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার’ দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন। ত‌বে, আসামিদের পরিবার থেকে অভিযোগ আসে, তাদের মারধোর করে জোর করে ওই স্বীকারোক্তি নেওয়া হয়।

এই ঘটনার ৫১ দিন পর ২৩ আগস্ট ওই কিশোরী জীবিত ফিরে আসে জিসা মনি। জানা যায়, সে ইকবাল নামের এক যুবককে বিয়ে করে বন্দর এলাকায় ভাড়া বাড়িতে সংসার পাতে। এরপর ২৪ আগস্ট জিসার স্বামী ইকবালকে গ্রেফতার করা হয়।

এই ঘটনায় ৩১ আগস্ট (সোমবার) মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শামীম আল মামুনকে বরখাস্ত করা হয়। ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে চার্জশিট গঠন করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় পু‌লি‌শের তদন্ত ও স্বীকা‌রো‌ক্তি আদা‌য়ের ব্যাপার‌টি সারা‌দে‌শেই বেশ সমা‌লোচনা সৃ‌স্টি ক‌রে।
0