জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মাহবুব, বিচার না পাওয়ার শঙ্কা স্ত্রীর

0

সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁ উপজেলার লেদামদী গ্রামের মাহবুব হত্যা মালমাটি অন্য দিকে প্রভাবিত করার চেষ্টা চালাচ্ছেন আসামী পক্ষের লোকেরা। শনিবার সন্ধায় নিহতের স্ত্রী শারমিন আক্তার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এ অভিযোগ করেন তিনি। এতে ন্যায় বিচার পাওয়ার ব্যাপারে শংসয় প্রকাশ করেছেন নিহতের পরিবার
নিহতের স্ত্রী শারমিন আক্তার বলেন, সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়ণের লেদামদী গ্রামের বাসিন্দা একাধীক হত্যা মামলা সহ ১০টি মামলার আসামি এছাহাক মিয়া, ফজলুল হক, একই গ্রামের ব্যবসায়ী মাহাবুব রহমানের কাছে চাঁদাদাবি করে। দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে, এছাহাক মিয়া, ফজলুল হক, হারুন মিয়া, জাকির হোসেন, লুৎফর মিয়া, আমীর হোসেন, মাছুম মিয়া, মোসলেম উদ্দিনের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একদল সন্তাসী বাহিনী হকিস্টিক, চাপাঁতি, লোহার রড সহ দেশীয় অস্ত্রে সজজিত হয়ে হামলা চালিয়ে ওই ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হাত ও পায়ের হাড় ভেঙ্গে-গুড়িয়ে দেয়। এর পর থেকে তিনি মারাত্বক অসুস্থ অবস্থায় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পর তার অবস্থান অবনতি হওয়ার পর গত শুক্রবার তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।
তিনি আরও বলেন, আমার স্বামীকে পরিকল্পিত ভাবে সন্ত্রাসী এছাহাক মিয়া ও ফজলুল হক এর নেতৃত্বে হামলা চালিয়ে হত্যা করা হয়। তিনি বলেন, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ময়না তদান্তের রিপোর্টটি ডেঙ্গু বলে চালিয়ে দেওয়ার চেস্টা করছেন। এতে আমরা আমার স্বামীর হত্যা ন্যায় বিচার পাব কিনা এ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছি। তিনি আরও বলেন সন্ত্রাসী ও হত্যা মামলার আসামিরা এলাকায় অনেক প্রভাব শালী ও কালো টাকার মালিক হওয়ায় হত্যা মামলাটি অন্য দিকে প্রভাবিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে।
নিহতের বাবা শাহাজাদা মিয়া কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, বাবা আমার ছেলের ব্যাপারে বিচার পাব কিনা এ নিয়ে সন্দেহ হচ্ছে। আসামিরা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে আর বলছে মামলা করে আমাদের কিছুই হবে না। টাকার বিনিময়ে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আমাদের পক্ষে নিয়ে নিবো। আর টাকা থাকলে এদেশে সবই করা সম্ভব। আমার ছেলের হত্যাকারীদের অভিলম্ভে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
এবিষয়ে যানার জন্য এছাহাক মিয়া ও ফজলুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
সোনারগাঁ থানা ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, মাহবুব মিয়া ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পুলিশ খুব শ্রীঘ্রই হাতে পাবেন। এ বিষয়ে আসামীদের গ্রেফতারের জন্য আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি।

0