টাকা না দিলে নারীর বিবস্ত্র ছবি তুলতো তারা!

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁও থানার পন্যোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের একটি মামলায় ৬ জনকে ১ দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।
রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মো. নুরুল ইসলাম এর ছেলে মো. আবুল হোসেন (২৮), মো. বাবুল হোসেন এর ছেলে মিরাজ হোসেন ওরফে শান্ত (২০), মো. ফারুক হোসেন এর ছেলে মো. ফোরকান (২৯), মো. মিন্টু মিয়ার ছেলে রুবেল হোসেন (২০), মো. সোলঅয়মান সরকার এর মেয়ে পুতুল খাতুন ওরফে নেহা (২০) ও মৃত. শাকিল এর মেয়ে মাহিমা খাতুন (১৯)।
মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) সকালে আসামিকে ৩ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে উঠায় পুলিশ। পরে শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খাতুন এর আদালত এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায় যে, গত ২৭ অক্টোবর রাত সাড়ে ৯ টার সময় ১নং আসামি বাদীকে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলাইয়া কাচঁপুর ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। আসামিগণ বাদীর নিকট ১২ হাজার টাকা মুক্তিপনের জন্য দাবী করে। টাকা না দিলে মারধর করে। তারপর তাকে জোড় পূর্বক উলঙ্গ করে ছবি তোলে। বাদী কৌশলে পালিয়ে এসে র‌্যাবের অফিসে অভিযোগ করে। অভিযোগ করার পর র‌্যাবের একটি অনুসন্ধান দল রাত দেড়টার সময় সোনারগাঁও কাঁচপুর মো. জাহিদ খানের পাঁচ তলা বিল্ডিং এর ২য় তলা থেকে আসামিদের গ্রেফতার করে। সে সময় তাদের নিকট থেকে একটি অপু ফোন উদ্ধার করে। যার মধ্যে মহিলার উলঙ্গ ছবি আলামত হিসেবে জব্দ করে।
প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় যে, মামলার ঘটনার সাথে আসামিদের জড়িত থাকার তথ্য ও প্রমাণ পাওয়া গেছে। মামলার মূল রহস্য উৎঘাটন ও সুষ্ঠু তদন্তে স্বার্থে আসামিদের কে ১ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে।
এবিষয়ে কোর্ট পরিদর্শক মো. আব্দুল হাই বলেন, আসামিরা পন্যোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলার সাথে জড়িত। তাই মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে আসামিদেরকে ১ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

0