ডনচেম্বার এলাকায় মুখোমুখি জেলা প্রশাসন-বিআইডব্লিউটিসি: ভবনসহ ১৪ কাঠা জমি উদ্ধার

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ডনচেম্বার এলাকার নবাব সলিমুল্লাহ সড়কে বিআইডব্লিউটিসির দখলে থাকা ১৪ কাঠা জমিসহ একটি পরিত্যক্ত ভবন উদ্ধার করেছে জেলা প্রশাসন। পরে কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুলের জন্য বর্ধিত জমিটি স্কুল কর্তৃপক্ষের নিকট বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় বিআইডব্লিউটিসি বলছে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে জমিটি ছিনিয়ে নিয়েছে সংস্থাটি।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) সকাল ১০ টার দিকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. সেলিম রেজার নেতৃত্বে পরিত্যাক্ত ভবনসহ জমিটি দখল মুক্ত করে জেলা প্রশাসন।

অভিযানের শুরুতে বিআইডব্লিউটিসির শ্রমিকরা বাঁধা দিয়ে হট্টোগোলের সৃষ্টি করলেও পুলিশ তা নিয়ন্ত্রণ করে। পরে ভবনটির ফটকের তালা ভেঙে ভিতরে থাকা সকল মালামাল জব্দ করা হয়। ভবন ও জমি উদ্ধার করে কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুলের অধিনে হস্তান্তর করা হয়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (সদর ভূমি এসিল্যান্ড) হাসান বিন আলী, কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুল প্রধান শিক্ষক শাহানা আক্তার, নারাণগঞ্জ বিআইডব্লিউটিসি ম্যানেজান (প্রশাসন) সালমা শিরীন চৌধুরী, সহাকারী জেনারেল ম্যানেজার মো. ফিরোজ শেখ, বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটি সাধারণ সম্পাদক খন্দকার জাকির হোসেন চুন্নু মাষ্টার, সদর থানা উপপরিদর্শক সিরাজুল ইসলামসহ পুলিশ ফোর্স।

এ প্রসঙ্গে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. সেলিম রেজা বলেন, বিআইডব্লিউটিসির জায়গাটির কোন সম্পর্ক নেই। তাদের জমির কাগজ দেখতে বললে তার অসমর্থ হয়। তাদের কোন কাগজ নেই। এখানে গাঁজার আসর বসতো। তাই জেলা প্রশাসন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুলের বর্ধিত ভবনের জন্য জমিটি দখলমুক্ত করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (সদর ভূমি অ্যাসিলেন্ড) হাসান বিন আলী জানান, জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে থাকা জমিটি ব্যক্তিগত প্রয়োজনে কিছু শ্রমিকরা ব্যবহার করে আসছিল। সরেজমিনে পরিদর্শনে জমিটির সাথে বিআইডব্লিউটিসির সরাসরি কোন যোগাযোগের প্রমাণ মিলেনি। অফিসিয়াল কার্যক্রমতো দূরের কথা এখানে কোন কর্মকর্তা-কর্মচারীর সন্ধানও মিলেনি। একাধিকবার বিআইডব্লিউটিসিকে জমির বৈধ কাগজ প্রদর্শন করতে বলা হলেও তারা দেখাতে ব্যর্থ হন। পরিদর্শনে জায়গাটি মাদকসহ অসামাজিক কার্যকলাপের ব্যবহৃত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাই প্রশাসনের সিদ্ধান্তে স্থানীয় একটি স্কু‌লের ব‌র্ধিত ভবনের জন্য জায়গাটি দখলমুক্ত করা হয়েছে।

কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুল প্রধান শিক্ষক শাহানা আক্তার লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুল সম্পসারণে ভূমির জন্য আবেদন করলে জেলা প্রশাসক মাদকর আড্ডাখানা হিসেবে চিহ্নিত এই পরিত্যাক্ত জমিটি আমাদের জন্য বরাদ্দ করেন। কিন্তু বিআইডব্লিউটিসির অবৈধ দখলের কারণে আমার জমিটি ব্যবহার করতে পারছিলাম না। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হলে জমিটি উদ্ধার করে আমাদের বুঝিয়ে দেন।

জেলা বিআইডব্লিউটিসি ম্যানেজান (প্রশাসন) সালমা শিরিন চৌধুরী লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানায়, ১৯৭৪ সাল থেকে রাষ্ট্রকতৃক বরাদ্ধকৃত জমিটি আমরা ব্যবহার করে আসছি। কিন্তু জেলা প্রশাসক তার ক্ষমতায় কা‌লেক্ট‌রেট পাব‌লিক স্কুলের নামে জমিটি আমাদের কাছে থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে। আমরা বিষটি বিআইডব্লিউটিসি চেয়ারম্যানকে অবহিত করছি। আমাদের ঊর্ধতন কর্মকর্তার ব্যাপারটি নিয়ে পদক্ষেপ নিবেন বলে জানিয়েছেন।

বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মহসীন ভূইয়া, সহ-সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন ও নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি আমিন লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানায়, ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু ১১টি সেক্টরের আওতায় ১৪ কাঠার এই জায়গাটি বিআইডব্লিউসির নামে বরাদ্দ করেছিলেন। সেই থেকে বিআইডব্লিউসির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিশ্রামার হিসেবে জায়গাটি ব্যবহৃত হচ্ছে। কিছু দিন আগেও ১১ লাখ টাকা খরচ করে জায়গাটির চারদিকে বাউন্ডারি দেওয়া হয়েছে। আজ সকালে শ্রমিকদের গ্রেপ্তারের হুমকিতে পুলিশটিমসহ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আমাদের বিশ্রামগারটি সিলগাল করে দেয়। বিনা অবগতিতে সন্ত্রাসী কায়দায় জেলা প্রশাসসের জবরদখলে আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

0