ডিজিটাল মানচিত্রে না.গঞ্জের ৬৩০ পোশাক কারখানা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: অচেনা সড়ক, অফিস, বাড়ি, রেস্তোরাঁ কিংবা হোটেল ইত্যাদি খুঁজে পেতে গুগল ম্যাপ বেশ জনপ্রিয়। তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে অনেকের কাছেই বিষয়টা ডালভাতের মতো ব্যাপার। সেই ধারণাকে কাজে লাগিয়ে নারায়ণগঞ্জের রপ্তানিমুখী পোশাক কারখানাগুলো নিয়ে একটি ডিজিটাল মানচিত্র তৈরি করেছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা উন্নয়ন কেন্দ্র (সেন্টার ফর এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ ডেভেলপমেন্ট-সিইডি)।

ম্যাপড ইন বাংলাদেশ নামের ডিজিটাল মানচিত্রটির মাধ্যমে রপ্তানিমুখী পোশাক কারখানাগুলোর সুনির্দিষ্ট অবস্থান ঠিকানাসহ জানা যাবে। তার পাশাপাশি কারখানাটি কবে স্থাপিত, তারা কী ধরনের পোশাক উৎপাদন করে, তাদের ক্রেতাপ্রতিষ্ঠান ও ব্র্যান্ডের নাম, রপ্তানির গন্তব্য দেশ এবং নারী ও পুরুষ শ্রমিকের সংখ্যার তথ্য মিলবে।

ফতুল্লার বিসিক শিল্প এলাকা

কারখানার নিকটবর্তী হাসপাতাল বা ক্লিনিক এবং ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দূরত্ব, ঠিকানা ও মুঠোফোন নম্বরও জানা যাবে। এ ছাড়া জানা যাবে কারখানাটির কী কী সনদ রয়েছে, কারখানাটি কারা পরিদর্শন করেছে এবং কারখানাটিতে ওয়ার্কার্স পার্টিসিপেশন কমিটি আছে কি না।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা উন্নয়ন কেন্দ্র (সিইডি) ‘ম্যাপড ইন বাংলাদেশ (এমআইবি) ’ শীর্ষক প্রকল্পের মাধ্যমে ২০১৮ সালের শেষ দিকে এই ডিজিটাল মানচিত্রের কাজ শুরু করে। যদিও তার আগের বছরই প্রকল্পটির যাত্রা শুরু হয়। চলবে আগামী বছরের জুন পর্যন্ত। লডেস ফাউন্ডেশন ও নেদারল্যান্ডস সরকারের অর্থায়নে এবং তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের দুই সংগঠন—বিজিএমইএ ও বিকেএমইএর সহায়তায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর (ডিআইএফই) থেকেও প্রকল্পটি সহায়তা পাচ্ছে। আর প্রকল্পটির সমন্বয়কারী হিসেবে আছে ব্র্যাক।

ডিজিটাল মানচিত্রে এখন পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের ৬৩০ পোশাক কারখানার অবস্থান ও অন্যান্য তথ্য-উপাত্ত সংযুক্ত হয়েছে। তার মধ্যে বিজিএমইএর সদস্য ও বিকেএমইএর সদস্য কারখানাই সবচেয়ে বেশি রয়েছে।

0