তরুণরা মন খুলে কথা বলতে পারে না সিনিয়র আইনজীবীদের কাছে: এড. মমিন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: জমের উঠেছে নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন। এবারের নির্বাচনে আওয়ামীপন্থি ও বিএনপিপন্থি দুটি প্যানেল এর ৩৪জনসহ মোট ৩৬জন প্রার্থী। এর মধ্যে আওয়ামীপন্থি মোহসীন ও মাহবুবুর পরিষদের বেশির ভাগ প্রার্থীরাই তরুণ।

২০১৬-১৭ সালের বার নির্বাচনে বিপুল ভোটে ক্রীড়া সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন এড. মাহমুদুল হক মমিন। এবারের নির্বাচনের তিনি লাইব্রেরী সম্পাদক পদপ্রার্থী। তার সাথে কথা হয়, নির্বাচনের নানা বিষয়ে।

এড. মাহমুদুল হক মমিন বলেন, আমি চাই তরুণরা এগিয়ে আসুক। তরুণরা আমাদের শক্তি। আমি নিজেও নিজেকে একজন তরুণ মনে করি। তরুণ আইনজীবীদের বন্ধু হতে চাই। কারণ তরুণরা অনেক সময় মন খুলে মনের কথা বলেতে পারে না সিনিয়র আইনজীবীদের কাছে। তাদের চাওয়া পাওয়ার কথা যেন আমাকে বলতে পারে এজন্য তাদের বন্ধু হতে চাই। তরুণ আইনজীবীরা আমার কাছে একটি সুন্দর লাইব্রেরী দাবি করেছে। আমিও তাদের একটি সুন্দর লাইব্রেরী দেওয়ার প্রতিশ্রতি দিয়েছি।

বিজয়টা কতটা সহজ জানতে চাইলে এড. মাহমুদুল হক মমিন বলেন, অনেক সহজ। কারণ নতুন বার ভবন নিমার্ণের জন্য অনেক কাজ ও পরিশ্রম করেছি। একটা সময় শেষে তা বাস্তবায়নও করে দেখানো হয়েছে। আগামী ১ বছরের মধ্যে বার ভবনের ৪ থেকে ৫ তলা সম্পূর্ণ হয়ে যাবে। তাই শুধু আমি না, আমাদের এড.মুহাম্মদ মোহসীন মিয়া ও এড.মাহবুবুর রহমান পরিষদের প্রত্যেকেই বিজয়ের যোগ্য।

প্রতিপক্ষ প্রার্থীদের বিষয়ে তিনি বলেন, তারা আইনজীবীদের উন্নয়নে অতীতে তেমন কোন কাজ করেনি। তাদের তেমন কোন কাজ দৃশ্যমান নেই।

হুমকি দমকি দিয়ে দিপু-পলুর প্যানেল প্রত্যাহারের অভিযোগ বিষয়ে তিনি বলেন, নির্বাচন আসলে একজন আরেকজনকে অপবাদ দিয়ে জয়যুক্ত হতে চান। এটা বর্তমানে নির্বাচনের প্রচলন হয়ে গেছে। বিষয়টা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

সকল ভোটার আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন বিপুল ভোটে জয়যুক্ত হতে পারি। ২৯শে জানুয়ারী অনুষ্ঠিত নির্বাচনে জয়যুক্ত হলে আইনজীবীদের পক্ষে কাজ করবো।

0