তারা রোগী নিয়ে যায় প্রাইভেট ক্লিনিকে: সেলিম ওসমান

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: একদিন সকালে মিটিং করতে আইসা দেখি র‌্যাবের সদস্যরা দালাল ধরতে আসছে। দালাল ধরাও পড়লো। তারা রোগী নিয়ে যায় প্রাইভেট ক্লিনিকে। সময়মতো যাওয়ার জন্য রোগী রেখে চলে যাবেন না।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার ৩৩ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, হাসপাতালে যারা টেন্ডারবাজি করে, দালালি করে তাদের ধরিয়ে দিতে হবে। কোথায় কোথায় গলদ আছে আমার কাছে পেশ করেন। হাসপাতালের আরও উন্নত করার ব্যাপারে ডিসেম্বর থেকে আমি কাজ করবো। দরকার পড়লে এই এলাকার কেউ এই হাসপাতালে টেন্ডার পাবে না। শুধু আপনারা একত্রিত হয়ে আমাকে মত দেন। আপনারা বাস, সিকিউরিটির কথা বলেছেন সেসব বিষয় দেখা হবে। নারায়ণগঞ্জের মানুষ যেন কষ্ট না পায় সেদিকে আপনাদের কাজ করতে হবে।

এ সময় দুঃখ প্রকাশ করে এমপি বলেন, আরপি সাহা হাসপাতালের জন্য জায়গা দিয়েছিলেন। কিন্তু তার নামেও আমরা হাসপাতালটা করতে পারি নাই। বড় বড় ব্যবসায়ীরাও মনে করে তিনি কোথাও অনুদান দিলে সে জায়গায় অন্তত তার নামটা থাকুক। এই হাসপাতালে আরপি সাহার নামটা নেই এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

সেলিম ওসমান বলেন, ডিসি সাহেবের কাছে অনুরোধ করবো পার্শ্ববর্তী জায়গাটা যেন পাই। ইতিমধ্যে প্রস্তাবনা গেছে এটা যেন সম্পূর্ণ আকারে মেডিকেল কলেজ হয়। এর জন্যই ৩০০ থেকে ৫০০ শয্যা করা হয়েছে।

হাসপাতাল ৫শ শয্যায় উন্নীত হওয়ার কাজ ধীরগতিতে চলছে উল্লেখ করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। বলেন, অর্থ বরাদ্দের পরেও বিলের আংশিক টাকা দেওয়ার পরেও কেন আমাদের কাজ বন্ধ রয়েছে সেটা প্রধানমন্ত্রীর কাছে রিপোর্ট করবো। আপনাদের সবাইকে নিয়ে এ প্রশ্ন করবো।

তিনি আরও বলেন, একটা ডায়ালাইসিস নাই, বার্ণ ইউনিট নাই। এটা একটা শিল্প এলাকা, বার্ণ আছেই। কিন্তু আমাদের বার্ণ ইউনিট নাই। এটা কভার করতে দুটো এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করেছি। কিন্তু তাতেও কাজ হয় না। বাচ্চাদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র নাই।

সাংসদ বলেন, আমার কাজ ভবিষ্যত প্রজন্ম গড়ে তোলা। ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নার্স ইনস্টিটিউট করার কথা ছিল। সেটা এই হাসপাতালে আনা হয়েছে কিন্তু তা তৈরি হচ্ছে না। আপনাদের দাবি তো আসতে হবে। একদিনে হবে না কিন্তু উদ্যোগ নেওয়া যাবে।

নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবু জাহেরের সভাপতিত্বে ও আবাসিক চিকিৎসক ডা. শামসুদ্দোহা সঞ্চয়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবুল জাহের, বিএমএ নারায়ণগঞ্জ জেলার সহ সভাপতি ডা. বিধান চন্দ্র পোদ্দার, সাধারণ সম্পাদক ডা. দেবাশীষ সাহা, গাইনি বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. জাহাঙ্গীর আলম, জেলা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এড. ওয়াজেদ আলী খোকন, জিপি এড. মেরিনা জামান, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এড. মোহসিন মিয়া প্রমুখ।

0