দুর্গোৎসবে শতভাগ নিরাপত্তা প্রদানে অতি.পুলিশ সুপারের ব্রিফিং

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সারা দেশের ন্যায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ৩১ টি মন্ডবে উদযাপিত হচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বিদের সবচেয়ে বড় সারদীয় দুর্গোৎসব। পূজা উদযাপনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এবং শতভাগ নিরাপত্তা প্রদানে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
পূজা মন্ডপ গুলোর শতভাগ নিরাপত্তা প্রদানের জন্য শুক্রবার সকাল ১০টায় পুলিশ সদস্যদের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়ে ব্রিফিং করেন নারায়ণগঞ্জ-খ অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলম। এসময় সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মনিরুজ্জামান বলেন,পূজা মন্ডবগুলিতে নিরাপত্তার জন্য পুলিশের পাশাপাশি পর্যাপ্ত আনসার সদস্য নিয়োজিত রাখা হয়েছে। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সোনারগাঁও থানার সেকেন্ড অফিসার মাসুদ রানা ও এসআই আবুল কালাম আজাদ সহ অন্যান্য পুলিশ সদস্য ও আনসার সদস্যগন।
সোনারগাঁ পুজা উদযাপন কমিটি সাধারন সম্পাদক জানান, শুক্রবার (৪ অক্টোবর) থেকে ৮ অক্টোবর মঙ্গলবার পর্যন্ত পাঁচ দিন ব্যাপী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে।পুজায় স্থানীয় কারিগর ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কারিগররা এখানে এসে তৈরি করেছেন মাটির প্রতিমা। প্রতিটি মন্ডপের জন্য তৈরি করা হয়েছে দূর্গা, লক্ষী, সরস্বতী, কার্তিক, গনেশ, অসুর, সিংহ, মহিষ, পেঁচা, হাঁস, সর্পসহ প্রায় ১১ রকমের প্রতিমা। এরই মধ্যে প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। এ বছর সোনারগাঁ উপজেলার কাঁচপুর,নয়াপুর, মরিষটেক,পঞ্চমীঘাট, বারদী আশ্রম, বৈদ্যেরবাজার,আনন্দ বাজার, চান্দের পাড়া, ভট্টপুর, সাহাপুর, পানাম, সাহাপুর রঘুভাঙ্গা, কৃষ্ণপুরা, কাবিলগঞ্জ, হামছাদী,গঙ্গাপুর সহ ৩১টি পুজা মন্ডপে সারদীয় দূর্গোৎসব উদযাপন করা হবে।
উপজেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি লোকনাথ দত্ত জানান, পূজায় সর্বস্তরের মানুষের সমাগম ঘটবে। তাই আমরা সবার কথা মাথায় রেখে প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা সহযোগিতা কামনা করছি।
এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলম বলেন’প্রতিটি মন্ডপেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা শতভাগ জোরদার করা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব ও আনসার সদস্যরা যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সজাগ রয়েছে।

0