দেওভোগের সেই ‘বর’ কারাগারে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লায় প্রেমিকাকে রেখে অন্যত্র বিয়ে করতে গিয়ে ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেপ্তার ইসতিয়াককে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছে আদালত।  

অভিযুক্ত ইসতিয়াক আহামেদ দেওভোগ পশ্চিম নাগবাড়ী এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে।

শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে আসামিকে আদালতে উঠালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মোহসীন এর আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (১৬ অক্টোবর) রাতে ফতুল্লা দেওভোগ পশ্চিম নাগবাড়ী এলাকার থেকে আসামিকে গ্রেপ্তার করেন পুলিশ।

এর আগে, দীর্ঘ ৪ বছরের প্রেমের সম্পর্কের মাঝে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করার অভিযোগ তুলে ওই যুবতী ফতুল্লা থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের একটি মামলা দায়ের করেন।

কারাগারে প্রেরণের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশ এএসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, ফতুল্লা থানার দায়েরকৃত নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার গ্রেপ্তারকৃত আসামি ইসতিয়াক আহামেদ’কে আদালতে প্রেরণ করলে বিজ্ঞ আদালত আসামিকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, আসামি ইসতিয়াকের সাথে বাদীনির চার বছরের প্রেম। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাদীনিকে একাধিকবার ধর্ষণ করে ইসতিয়াক। সর্বশেষ গত বছর ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে দেওভোগ নাগবাড়ীতে নিজের ভাড়া বাসায় ধর্ষণ করে।

একাধিকবার বিয়ের কথা বললেও ইসতিয়াক নানা টালবাহানায় বিয়ে না করার পাঁয়তারা করে। পরে প্রেমিক ইসতিয়াকের অন্যত্র বিয়ে করার বিষয়টি জানতে পেরে ফতুল্লা থানায় এসে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন।

0