দেওভোগে বৃদ্ধের আত্নহত্যা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দেওভোগে পারিবারিক কলহের জের ধরে ভোলা দাস (৬০) নামক এক বৃদ্ধ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। সোমবার (৩ অক্টোবর)  দুপুরে ফতুল্লার দেওভোগ আখড়াস্থ  অনিল মজুমদারের ভাড়াটিয়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ভোলা দাস ফতুল্লা মডেল থানার দেওভোগ আখড়া এলাকার অনিল মজুমদারের বাড়ীর বাড়াটিয়া  মৃত রাধা মোহন দাসের পুত্র।

সংবাদ পেয়ে পুলিশ বিকেল চারটার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক আনোয়ার হোসেন মোল্লা জানায়, নিহত ভোলা দাস বেকার ছিলেন।তার ছেলে  শহরের একটি ওয়ালটন শোরুমে সাত হাজার টাকা বেতনে চাকুরি করে।ছেলের আয়ে সংসার চলতো। অভাব-অনটনের সংসারে প্রায় সময় স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হতো। সোমবার বেলা এগারোটার  দিকে নিহতের সাথে তার স্ত্রীর কোন এক বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। বেলা সাড়ে বারোটার দিকে স্ত্রী ও পুত্র নিহত ভোলা দাস কে বাসায় একা রেখে পূজা মন্ডপে যায়। দুপুর পৌনে দুইটার দিকে বাসায় ফিরে এসে দেখতে পায় ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় কাপড় পেচাঁনো নিহত ভোলা দাসের ঝুলন্ত দেহ। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়া গিয়ে লাশের সুরহতাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়। বিষয়টি আইনি পক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।