ধর্ষকের হুমকিতে মা মেয়ের থানায় আশ্রয়, মামলা নেয়নি পুলিশ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিয়ের প্রলোভনে ছয় মাস যাবত ধর্ষণ করে আসছে মেয়েটিকে; এখন বিয়ের কথা বলতেই অস্বীকার! বিয়েতো দূরের কথা, উল্টো দেওয়া হচ্ছে হত্যার হুমকি। তাই নিরাপত্তাহীনতায় বাধ্য হয়ে সেই ধর্ষিতা ও তার মা আশ্রয় নেয় থানায়। অথচ, অভিযোগের ৪৮ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও এখনও মামলা গ্রহন করেনি পুলিশ।

ধর্ষিতার পরিবার সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের চৈতনকান্দা এলাকার দরিদ্র কুলির কন্যা (১৫) এর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে একই এলাকার রূপ মিয়ার ছেলে আরিফ(২২)। এ প্রেমের সম্পর্ক বিবাহে রূপ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিগত ৬ মাস পূর্ব থেকে আরিফ তার প্রেমিকাকে বেশ কয়েকবার জোর করে ধর্ষণ করে।

সম্প্রতি ধর্ষিতা আরিফকে বিয়ের কথা বললে সে বিয়ে করবেনা বলে জানিয়ে দেয়। এ ঘটনায় ধর্ষিতা ২৩ আগস্ট আড়াইহাজার থানায় ধর্ষক আরিফের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণের অভিযোগ দেন।

ধর্ষণের ঘটনায় থানায় অভিযোগের বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে ধর্ষক আরিফ ও তার পরিবার ক্ষিপ্ত হয়ে ধর্ষিতা ও তার মাকে অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য হুমকী দিতে থাকে। রোববার সকালে ধর্ষক ও তার পরিবারের হুমকীর মুখে ধর্ষিতা ও তার মা তাদের প্রয়োজনীয় মালামাল বস্তাবন্দী করে আড়াইহাজার থানায় আশ্রয় নেন।

ধর্ষণের অভিযোগের ঘটনাটির সত্যতা স্বীকার করে উপপরিদর্শক হুমায়ুন কবির বলেন, একদিন আগে অভিযোগটি পাওয়ার পর ঘটনাটি আমি তদন্ত করেছি। মেয়েটির পূর্বে একটি বিয়ে হয়েছিল। বর্তমানে অফিসিয়াল কাজে নারায়ণগঞ্জে আছি। থানায় এসে ব্যবস্থা নিবো।

অপরদিকে, ওসি (তদন্ত) সফিকুল ইসলাম জানান, আজ আবারো ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

0