নকল পণ্য সামগ্রীসহ গ্রেপ্তারকৃতরা রিমান্ডে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জে নকল পণ্য সামগ্রীসহ গ্রেফতারকৃত আটজনকে তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।
রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মো. আমিনুল ইসলাম (৩২), মো. মইনুল ইসলাম (৩২), মো. অহিদুল ইসলাম (৩৮), মো. সাইফুল ইসলাম (২৫), মো. সোহাগ মিয়া (২৪), মো. সিরাজুল ইসলাম (১৯), মো. মেহেদী (১৮) ও মো. রাজিব (২০)।
রোববার (৬ অক্টোবর) সকালে আসামিদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে উঠঅয় পুলিশ। পরে শুনানি শেষে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহম্মেদ হুমায়ূন কবীর এর আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এজাহার সূত্রে জানা যায় যে, বিশেশ অভিযান পরিচালনা করে (২ অক্টোবর) রাত এগারটার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় ধানমন্ডির বাসিন্দা হাজী বেলায়েত হোসেনের মালিকানাধিন মুনস্টার মার্কেটিং প্রাইভেট লিমিটেড ও ম্যাক্স ইলেক্ট্রো ইন্ডাস্ট্রিজে অভিযান চালিয়ে বিপুল সংখ্যক নকল প্রসাধনি ও ইলেক্ট্রিক পণ্য সামগ্রীসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।
প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় যে, উদ্ধারকৃত মালামাল সর্বমোট ২০ কোটি ৭২ লক্ষ ৯৫ হাজার ০৮০ টাকা। জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা স্বীকার করে উক্ত গোডাউনে বিভিন্ন কোম্পানীর নামে নকল সামগ্রী এখানেই তৈরি হতো বিশ্ববিখ্যাত নানা ব্র্যান্ডের নকল প্রসাধনি ও এলজি, স্যামসাং, প্যানাসনিক, সনি এলসিডি, এলইডি টিভিসহ ফ্রিজ, মাইক্রোওভেন।
এছাড়াও আরও জানা যায়, গোডাউনের মালিক মো. বেলায়েত হোসেন কাঁচামাল বিদেশ হইতে চোরা চালানের মাধ্যমে আমদানী করে ভেজাল বডি স্প্রে, পারফিউম ও সেভিং ফোম এবং নকল ইলেকট্রনিক সামগ্রী তৈরি করে প্রতারণা পূর্বক ট্রেক মার্ক জালিয়াতি করছেন। গ্রেফতারকৃত আসামীদের রিমান্ডে নিয়ে মামলার মূল রহস্য উদঘাটন ও পলাতক আসামীদের গ্রেফতার জন্য আসামিদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন চেয়ে আদালতে পাঠিয়েছেন জেলা গোয়েন্দা শাখার নির্বাহী এসআই খোকন চন্দ্র সরকার।
এবিষয়ে কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আব্দুল হাই বলেন, মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিজ্ঞ আ;ালতের নির্দেশে ৩ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

0