নগরবাসী জানে না কোথায় কোরবানি দিতে হবে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রতিবারের মতো এবারও স্থানিয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পশু কোরবানির জায়গা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। রাত পোহালেই ঈদুল আজহা। অথচ, এখনো নির্ধারিত পশু কোরবানির স্থান কোথায় জানেনা নগরবাসী।

রোববার (১১ আগস্ট) নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৩টি অঞ্চলের প্রায় শতাধিক লোক জনের সাথে আমাদের প্রতিনিধিরা কথা বলে এ তথ্য তুলে নিয়ে আসেন।

এই ঈদেই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ তাদের ধর্মীয় বিধান মতে গবাদিপশু কোরবানি দিয়ে থাকে। তবে কোরবানির ঈদের দিন প্রকাশ্যে এমনকি সড়কগুলোতে যত্রতত্র পশু জবাই দিতে ও জবাইয়ের পর বর্জ্য ফেলতে দেখা যায়। মূলত ঈদের দিন থেকেই পরবর্তী কয়েকদিন বহু সড়কে হাঁটাচলা করাই অসহ্য হয়ে পড়ে। নগরবাসী এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই নানা ধরনের আলোচনা সমালোচনা করছিলো।

স্থানীয়দের ভাষ্য মতে, সিটি করপোরেশন প্রচার প্রচারণা না করায় এখানকার বাসীন্দারা আগের মতোই বাসার গ্যারেজ, খালি জায়গা, রাস্তা ও গলিতে পশু কোরবানি দিবেন।

জানা গেছে, গত ৬ আগস্ট স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী তাজুল ইসলাম নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে পশু কোরবানির জন্য ২৫৮টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে। এখনও দু’ একটি ওয়ার্ড ব্যতিত্ব কোরবানির জন্য নির্ধারত স্থান নিয়ে তেমন কোন প্রচার প্রচারণা চালায়নি কেউ। এ প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত (রাত ১০টা) নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সরকারি ওয়েব সাইডে নির্ধারিত পশু কোরবানির স্থানের তালিকা প্রকাশ করেনি কর্তৃপক্ষ।

0