নগরীর গঞ্জেআলী খাল থেকে যুব‌কের লাশ উদ্ধার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণণগঞ্জ: প্রতিদিনের মতো বাসা থেকে বের হয় উত্তর চাষাঢ়া এলাকার কুদ্দুস আলী ভুঁইয়া (৪০)। পেশায় রিক্সা চালক, তিনি মৃগী রোগে আক্রান্ত। মাঝে মাঝেই ২-৩ দিনের জন্য নিখোঁজ হয়ে যেতেন তিনি, আবারও ফিরেও আসতেন। কিন্তু গত রোববার নিখোঁজ হওয়ার পর আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি তার।

এদিকে, নিখোঁজ হওয়ার ২দিন পর মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) সদর থানার উত্তর চাষাঢ়া এলাকায় গঞ্জেআলী খাল থেকে কুদ্দুস আলী ভুঁইয়ার লাশ পাওয়া যায়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করে।

নিহত কুদ্দুস আলী ভুঁইয়া গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিন চন্ডিপুরের চরহরিপুর এলাকার মৃত নোপাস ভুঁইয়ার ছেলে। নারায়ণগঞ্জ সদর থানা এলাকার উত্তর চাষাঢ়া বাদশা মিয়ার ভাড়া বাড়ীতে স্ত্রী, ২ মেয়ে ও ১ ছেলে নিয়ে থাকতেন।

প্রত্যক্ষদর্শী মো. খালেক মিয়া লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, সকালে সিটি কর্পোরেশন থেকে মশা নিধনের জন্য লোক আসে স্প্রে করার জন্য। পরে তারাই এই লাশের দেখা পায়। পরে তারা আমাদের অবগত করেন বিষয়টি। আমরা সাথে সাথে স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানাই। পরবর্তীতে তিনিই পুলিশে খবর দেয়।

নিহতের স্ত্রী মর্জিনা বেগম লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানায়, প্রতিদিন বের হয় বাসা থেকে সকালে। বেলা ১০ টা ১১টায় এসে খেয়ে রিক্সা চালাতে যায়। রবিবারও সকাল ৬টায় বের হয় তিনি, সকাল ১০টা-১১টায় আর আসেনি। আমরা ভেবেছি চলে আসবে। কারো সাথে তার কোন শত্রুতাও নেই।

তিনি আরও বলেন, আজ জানতে পারলাম খালে একটা লাশ পড়ে আছে। সেখানে গিয়ে গায়ের জামা দেখে চিনতে পারি এটা তার লাশ।

এ সময় ঘটনাস্থলে যাওয়া নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আজহার লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমরা খবর পেয়ে সাথে সাথে ঘটনাস্থলে যাই। লাশের পরিচয় শনাক্ত করে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে মর্গে প্রেরণ করেছি। লাশের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিব ভাবে জানতে পারি নিহতের মৃগী রোগ ছিলো। প্রায় সময় তিনি নিখোঁজ থাকতেন। ময়নাতদন্তের রির্পোর হাতে পেলে মৃত্যুর আসল কারণ যানা যাবে।